এক্সক্লুসিভ সংবাদ

সেন্ট মার্টিন নিজেদের দাবি করে চরম আস্পর্ধা দেখাল মিয়ানমার!

বাংলাদেশের সেন্ট মার্টিন দ্বীপ

ভুবনবাংলা নিউজ ডেস্ক :: চরম আস্পর্ধা দেখিয়ে মিয়ানমার তাদের মানচিত্রে সেন্ট মার্টিনকে অন্তর্ভুক্ত করেছে। এর প্রতিবাদে ঢাকায় মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও-কে তলব করে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

একইসঙ্গে এ ব্যাপারে অবিলম্বে মিয়ানমারকে ব্যাখ্যা দিতে বলেছে ঢাকা।

সম্প্রতি দুটি ওয়েবসাইটে মিয়ানমার তাদের মানচিত্র আপলোড করেছে। আস্পর্ধা তাতে সেন্ট মার্টিনকে তাদের ভূখণ্ডের অংশ হিসেবে দেখানো হয়েছে।

মানচিত্রে মিয়ানমারের মূল ভূখণ্ড এবং বঙ্গোসাগরে বাংলাদেশের অন্তর্গত সেন্টমার্টিন দ্বীপকে একই রঙে চিহ্নিত করা হয়।

অন্যদিকে চরম আস্পর্ধা দেখিয়ে বাংলাদেশের ভূভাগ চিহ্নিত করা হয় অন্য রঙে।

আস্পর্ধা

মানচিত্রে সেন্ট মার্টিন নিজেদের করে নিয়েছে মিয়ানমার

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মেরিটাইম অ্যাফেয়ার্স ইউনিটের প্রধান রিয়ার অ্যাডমিরাল (অবসরপ্রাপ্ত) মো. খুরশেদ আলমের দফতরে মিয়ানমার রাষ্ট্রদূতকে তলব করা হয়।

এ সময় মিয়ানমার রাষ্ট্রদূতের হাতে সেন্টমার্টিন দ্বীপ নিয়ে মালিকানার দাবির বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে একটি কূটনৈতিক পত্র দেয়া হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, জবাবে উ লুইন ও জানিয়েছেন, ভুলক্রমে এটা হয়ে থাকতে পারে।

সমুদ্রসীমাবিষয়ক (মেরিটাইম) ইউনিটের সেক্রেটারি মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে এ-ও মনে করিয়ে দেন যে, ২০১২ সালে সমুদ্রসীমা নিয়ে আন্তর্জাতিক আদালতের রায় বাংলাদেশের পক্ষে যায়।

সেন্টমার্টিন দ্বীপের কিছু অংশ নিজেদের দাবি করে নতুন করে বিতর্কে জড়ালো মিয়ানমার।

গতবছর আগস্টে ব্যাপক রোহিঙ্গা নিধন করে মিয়ানমার। হত্যা ভয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে ৭ লাখ রোহিঙ্গা।