আইন আদালত

সাবধান সৌদি প্রবাসীরা, না হয় গুনতে হবে ১৫ বছরের জেল!

দেশে থেকে প্রবাসে আসলে বা প্রবাস থেকে দেশে যাবার সময় অনেক পরিচিত জন তাদের পরিচিত আত্মীয় স্বজনদের জন্য বিভিন্ন জিনিসপত্র পৌছে দেয়ার অনুরোধ করেন। এটাকে বলে চালানী। সোজা ভাবে বলরে নিজের জিনিসপত্রের পাশাপাশি অন্যের কিছু জিনিসপত্র নিয়ে পৌছে দেয়া। প্রায় সব প্রবাসী এই চালানীর সর্ম্পকে অবগত আছেন।

বেশ কিছু দিন আগের ঘটনা সৌদি আরবের রিয়াদে প্রবাসী এক যুবক বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে ফিরছিলেন। পরিবার পরিজনের সঙ্গে ঈদ কাটিয়ে তিনি ফিরছিলেন প্রবাসে।নতুন বিয়ে করেছেন, তাই স্ত্রীও ছিলো তার বিদায় বেলার সঙ্গী।সাথে নিজের একটি লাগেজ ছিলো।

নিজের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের পাশাপাশি এক দূর সম্পর্কের আত্মীয় একটি প্যাকেট দেন সৌদি আরবে পৌছে দেয়ার জন্য। তিনি সরল বিশ্বাসে সেটি নেন। বাংলাদেশ ফেরিয়ে রিয়াদ বিমানবন্দরে পৌছার পর সেখানে নিয়মমাফিক চেকাপ করেন সৌদি ইমিগ্রেশান পুলিশ। সেই প্যাকেটে পাওয়া গেলো নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য হেরোইন।

এতো গেলো কয়েক মাস আগের ঘটনা। সম্প্রতি এক প্রবাসী এই চালানী ঘটনায় ফেঁসে এখন সৌদি আরবের জেলে বসে কেঁদে কেঁদে বুক ভাসাচ্ছেন। কারন অন্যের জিনিস আনতে গিয়ে তিনিও ভালোভাবে চেক করে আনেনী।