বিশেষ প্রতিবেদন

সাঁতারটা এবার শিখেই ফেলো

চার বন্ধু মিলে কক্সবাজারে গিয়েছে খালিদ, ধ্রুব, আওসাফ ও অভিষেক। এর মধ্যে খালিদ সাঁতার জানে না। দুপুরে সমুদ্রপাড়ে সবাই। হঠাৎ ধ্রুবর ফোন বেজে উঠল। কথা শেষে ধ্রুব জানাল, ‘খালিদের আম্মু ফোন করেছিল। আন্টি বলেছে খালিদ সাঁতার জানে না। তাই ও যেন কিছুতেই সমুদ্রে না নামে। আমাদের খেয়াল রাখতে বলেছে।’ আওসাফ বলল, ‘ভাবলাম সমুদ্রে একটু গোসল করব। এখন ওকে রেখে তো আর আমরা আনন্দ করতে পারি না।’ বন্ধুদের এমন করুণ দশা দেখে খালিদ ঠিক করে ফেলল যে করেই হোক শিখে ফেলতে হবে সাঁতার।

নানা রকম সাঁতার

সাঁতারের প্রশিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল, আমাদের দেশে নানা ধরনের সাঁতার শেখানো হয়। চিত সাঁতার (ব্যাকস্ট্রোক), বুক সাঁতার, প্রজাপতি সাঁতার (বাটারফ্লাই), ডুব সাঁতার, ফ্রি স্টাইলসহ আরো কয়েক পদ্ধতি আছে। ফ্রি স্টাইলটা সবাই আগে রপ্ত করে। তবে টিনএজারদের মধ্যে প্রচলিত স্টাইলটা হলো বাটারফ্লাই সাঁতার।

কয়েক দশক ধরে সাঁতার শেখাচ্ছেন চাঁদপুরের অরুণ নন্দী সুইমিং পুলের প্রশিক্ষক মো. ছানাউল্লাহ। জানালেন, ‘সাঁতার উত্তম ব্যায়াম। আমি এখনো নিয়মিত সাঁতার কাটি। বয়স হলেও শরীর ফিট আছে। সাঁতার কাটার আগে কিছু বিষয় আছে, যেমন ওয়ার্ম আপ করা। এটা কিন্তু খুব জরুরি।’ তিনি আরো জানালেন, ‘সপ্তাহখানেক অনুশীলন করলেই সাঁতারের বেসিক রপ্ত করা যায়। মুক্ত সাঁতারের বিশেষ নিয়মকানুন নেই। গ্রামের ছেলেমেয়েরা পুকুর-নদীতে যেমন খুশি সাঁতরে অভ্যস্ত। তারা দ্রুত অন্য সাঁতারগুলো শিখে ফেলতে পারে।’

সাঁতার শিখেছে অষ্টম শ্রেণির আবিব মুনতাসির। সে জানায়, ‘আগে দাদুবাড়িতে গেলে দেখতাম ছেলেমেয়েরা নদীতে সাঁতার কাটছে। খুব ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও নামতে পারিনি। পরে বাসায় এসে বায়না ধরি আমাকে সাঁতার শেখাতে। এক মাসের কোর্স করি। এখন বাড়িতে গেলেই এক দৌড়ে নদীতে। সাঁতারের প্রতিযোগিতাতেও অংশ নিয়েছি। বুকসাঁতার ও বাটারফ্লাই জানি আমি। সামনে আরো বড় প্রতিযোগিতায় নাম লেখাব।’

শুরুর আগে

সাঁতার শুরুর আগে ওয়ার্ম আপ করে নিতেই হবে। সাঁতারের শুরুতে গোসল করে নেওয়াও ভালো।

সুইমিংপুলে সাঁতার শেখার শুরুতে একা একা নামবে না।

সাঁতার কাটার সময় ওয়াটারপ্রুফ সানস্ক্রিন ব্যবহার করা ভালো। সুইমিংপুলে ডাইভ করার ব্যবস্থা না থাকলে কিছুতেই ডাইভ দিতে যাবে না।

সাঁতার শুরুর আগে কোনো ভারী খাবার খাওয়া যাবে না। পানি বা তরল খাবার খেতে পারো।

গ্রামে যারা সাঁতার কাটো, তারা নোংরা পানি এড়িয়ে চলবে। সাঁতার শেষে অবশ্যই ভালো পানি দিয়ে আবার গোসল করে নিতে হবে।

সাঁতারের স্কুল

জাতীয় সুইমিং কমপ্লেক্স, মিরপুর: এখানে ছেলে ও মেয়েদের সাঁতার শেখার আলাদা ব্যবস্থা রয়েছে। রবি ও সোমবার বাদে প্রতিদিন খোলা থাকে। ভর্তি ফি ২৫০০ টাকা পরের মাস থেকে মাসে দুই হাজার টাকা। ফোন: ০১৯১২ ০৫৭৪৯৭

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সুইমিংপুল: শিক্ষার্থী ছাড়া বাইরের মানুষও সাঁতার শিখতে পারবে। সাত বছর বয়স থেকে ভর্তি হওয়া যাবে। চার ফুট লম্বা হতে হবে। ভর্তি ফি দুই হাজার ১০ টাকা। পরের মাস থেকে এক হাজার টাকা। ০১৭১৯ ৮৭৮৯৪৮।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম সুইমিংপুল : এখানে শুধু ছেলেদের শেখানো হয়। প্রথম মাসে দুই হাজার এবং পরের মাস থেকে দেড় হাজার টাকা। সপ্তাহে পাঁচ দিন। মঙ্গল-বুধবার বন্ধ। ০১৭১২ ৬০৪৯৫২।

সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স : এখানে শুধু মেয়েরা সাঁতার শিখতে পারে। শুক্রবার বাদে সপ্তাহের প্রতিদিন শেখানো হয়। ভর্তি ফি ৫০০ টাকা। প্রথম মাসে মোট আড়াই হাজার টাকা দিতে হয়। এরপর প্রতি মাসে দুই হাজার টাকা ফি। ফোন : ০২৯১১ ৯৭০৪

গুলশান ইয়ুথ ক্লাব : বৃহস্পতি, শুক্র ও শনিবার বিকেলে মেয়েদের এবং শুক্র, শনি, সোম ও বুধবার সাঁতার শেখার সুযোগ রয়েছে। মোট ১২টি ক্লাস করানো হয়। ফি তিন হাজার টাকা। ফোন : ০১৮৪৪ ০২৭৩৯৭

অফিসার্স ক্লাব : বেইলি রোডের অফিসার্স ক্লাবে ছেলে ও মেয়েদের জন্য সাঁতার শেখার আলাদা ব্যবস্থা রয়েছে। ১৬টি কোর্স শেখানো হয়। ভর্তি ফি পাঁচ হাজার টাকা। সাঁতারের পোশাকের জন্য বাড়তি ১১০০ টাকা। ০১৯২৩৬২৫০৯৬।

প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও : এখানে সাঁতার শিখতে ছয় থেকে ১২ বছর বয়সীদের জন্য ভর্তি ফি সাড়ে ১৭ হাজার টাকা। ১২ বছরের বেশি বয়সীদের জন্য সাড়ে ২১ হাজার টাকা। একই পরিবারের একাধিক সদস্য ভর্তি হলে দুই হাজার টাকা ছাড়। শুক্র ও সোমবার সাঁতার শেখানো হয়। ছোটরা শুক্র ও শনিবার সকাল ৯টা থেকে ১০টা এবং রবিবার ও সোমবার বিকেল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত শিখতে পারবে। বড়দের জন্য সময় রাত ৮টা থেকে ৯টা। যোগাযোগ : ৫৫০২৮০০৮

বিভাগীয় শহর : সিলেট সুইমিং ক্লাবে সপ্তাহের সাত দিনই নারী-পুরুষদের আলাদা করে সাঁতার শেখানোর ব্যবস্থা আছে। আছে সাঁতার ব্যবস্থাও। সিলেটের মিশন বালিকা বিদ্যালয়ে চার থেকে ১২ বছরের শিশুদের সাঁতার শেখানো হয়। রাজশাহীতে মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সের সুইমিংপুলে নারীদের পাশাপাশি পুরুষরাও শিখতে পারবে। ২৪ দিনের কোর্সের ফি দুই হাজার টাকা। সাপ্তাহিক ছুটি মঙ্গলবার। শুধু সাঁতার কাটতে প্রতি ঘণ্টার ফি ৫০ টাকা। রংপুরের ভাইস চ্যান্সেলর কোয়ার্টার ও ভিন্ন জগৎ সুইমিংপুল। সকাল ৮টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত খোলা থাকে। খুলনা বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স সুইমিংপুল আট লেনবিশিষ্ট। ময়মনসিংহ জেলা শহরের শিল্পকলা একাডেমির পাশে আছে সুইমিংপুল। শিশুরাও এখানে ভর্তি হতে পারবে, তবে উচ্চতা ৪ ফুট হতে হবে।