আর্ন্তজাতিক

সংরক্ষিত আসন বরাদ্দের পর পিটিআইয়ের এমপি ১৫৮

ভাবী প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) পার্লামেন্টে সংরক্ষিত নারী ও সংখ্যালঘু আসনের মধ্যে ৩৩টি পেয়েছে। এখন দলটির মোট আসন ১৫৮টি। ফলে পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন থেকে পিটিআই মাত্র ১৪টি আসন দূরে।

এদিকে আগামী ১৮ আগস্ট অনুষ্ঠেয় শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে বিরোধী দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) নেতা শাহবাজ শরিফ এবং পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) নেতা বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারিকে আমন্ত্রণ জানানো হবে বলে পিটিআই সূত্রে জানা গেছে।

পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন গত শনিবার বিভিন্ন দলের মধ্যে নির্বাচনে পাওয়া আসনের ভিত্তিতে সংরক্ষিত আসনের বরাদ্দ দেয়। পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদে সংরক্ষিত আসনসংখ্যা ৭০টি। এর মধ্যে নারী আসন ৬০টি এবং সংখ্যালঘু ১০টি। নারী আসন থেকে পিটিআই পেয়েছে ২৮টি এবং সংখ্যালঘু থেকে পাঁচটি।

জাতীয় পরিষদের সংখ্যাগুরু দল হতে তাদের বাকি যে আসনগুলোর প্রয়োজন তা ছোটখাটো দলের সঙ্গে জোট করে পূরণ করা হবে। ৩৪২ আসনের সাধারণ পরিষদে সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য প্রয়োজন ১৭২ সদস্য। পিটিআইয়ের দাবি, প্রয়োজনীয় সংখ্যক সদস্য তাদের আছে। দলের মোট আসন এখন ১৫৮টি। তবে কিছু কমবে। ইমরান গত ২৫ জুলাই অনুষ্ঠিত নির্বাচনে পাঁচটি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এর মধ্যে চারটি আসন তাঁকে ছেড়ে দিতে হবে।

কারান্তরীণ সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) সংরক্ষিত আসনের ১৮টি পাওয়ার পর জাতীয় পরিষদে তাদের আসনসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮২টি। আর পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) ৬৪টি।

এদিকে গত শনিবার পিটিআইয়ের একটি প্রতিনিধিদল বিদায়ী স্পিকারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে। পরে দলের মুখপাত্র ফাওয়াদ চৌধুরী সাংবাদিকের জানান, পার্লামেন্টকে শক্তিশালী করতে তাঁরা বিরোধী দলগুলোকে সঙ্গে নিয়ে চলবেন। বিরোধী দলের যে দাবি থাকুক না কেন তাকে বিবেচনায় নেওয়া হবে। তিনি বলেন, তাঁদের দল সরকার গঠনের পর প্রধানমন্ত্রী ভবন, গভর্নর এবং প্রধান সচিবদের বাসভবনের ব্যয় কমিয়ে ফেলা হবে। তিনি বলেন, কাজ করার সম্পর্ক জোরদার করার স্বার্থে তাঁরা সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বসবেন। ওই দিনই পিপিপি নেতাদের সঙ্গে তাঁদের সাক্ষাতের কথা ছিল।

ফাওয়াদ বলেন, পাকিস্তান চারদিক থেকে সংকটের মধ্যে আছে। সমাধানের জন্য প্রয়োজন ঐক্য। তিনি আরো বলেন, ইমরান জাতীয় পরিষদে তাঁর মিয়ানওয়ালি আসনটি রাখবেন। পাকিস্তানের সাধারণ পরিষদ আজ বসার কথা। আজই সদস্যরা শপথ নেবেন এবং স্পিকার নির্বাচন করা হবে। প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন হবে ১৭ আগস্ট। পরদিন শপথগ্রহণ। সূত্র : জিও নিউজ, ডন, পিটিআই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here