বিনোদন

শেষমেশ মিলল অনুমতি

অবশেষে অনুমতি মিলল শাকিব খানের ‘ভাইজান এলো রে’ সিনেমার। গতকাল সোমবার ছবিটি সেন্সর বোর্ডে প্রদর্শিত হয়। ছবিটি দেখার পর সেন্সরের সদস্যরা আনকাট ছাড়পত্র দিয়েছে। অনুমতি পাওয়ায় আগামী শুক্রবার (২০ জুলাই) মুক্তি পাচ্ছে ছবিটি। কলকাতার নির্মিত সিনেমাটি আমদানি করছে এন ইউ আহমেদ ট্রেডার্স।

প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ‘ভাইজান এলো রে’ কত হলে মুক্তি পাবে সেটা আরও দুদিন পর জানা যাবে। তবে ভালো ভালো সিনেমা হলগুলো ছবিটি চালাতে আগ্রহী।

চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সচিব আলী সরকার জানান, ‘ভাইজান এলো রে’ আনকাট ছাড়পত্র পেয়েছে। ছবিটি আমি নিজেও দেখেছি। ভালোই লেগেছে। তিনি আরো বলেন, এমন গল্পের ছবিই দর্শকরা পছন্দ করবেন বলে আমার বিশ্বাস। যারা ছবিটির সঙ্গে জড়িত তারা চাইলে এবার মুক্তি দিতে পারবেন। আর কোনো বাঁধা নেই।

আমদানি করে ‘ভাইজান এলো রে’ বাংলাদেশে মুক্তি দিচ্ছে এন ইউ আহমেদ ট্রেডার্স। বিনিময়ে ওপারে রপ্তানি করছে ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’। বাংলাদেশের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানটি গেল বৃহস্পতিবার ‘ভাইজান এলো রে’ ছবিটি সেন্সরবোর্ডে মুক্তির অনুমতি নিতে জমা দেয়। সোমবার প্রদর্শনের পর কর্তন ছাড়াই সেন্সরের কাঠগড়া পেরোয় ‘ভাইজান এলো রে’।

উল্লেখ্য, কলকাতার নির্মিত শাকিব-শ্রাবন্তীর ছবিটি রোজার ঈদেই মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ওপার বাংলায় মুক্তি মিললেও নানান জটিলতায় এপার বাংলায় মুক্তি পায়নি ছবিটি। ঈদের কয়েকদিন পর মুক্তির কথা থাকলেও সেখানেও দেখা দেখা দেয় জটিলতা। অবশেষে কাট-খড় পুড়িয়ে মুক্তি পাচ্ছে জয়দীপ মুখার্জীর ছবিটি। একই দিনে বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে জিত ও মিমের সুলতান।