লাইফস্টাইল

শাহরুখ-গৌরীর স্কুল জীবনের প্রেমের ছবি ভাইরাল

বর্তমানে একজন বলিউড বাদশা, আর অন্যজন সেই বদশার ঘরণী। বুঝতেই পারছেন কার কথা বলছি? শাহরুখ ও গৌরী। কিং খানের পত্নী গৌরীকে ‘বলিউডের ফার্স্ট লেডি’ বললেও অত্যুক্তি হয়না। যদিও শাহরুখ-গৌরীর প্রেম, বিয়ে এসব কিছুই এতটাও সহজ ছিল না। মাঝে অনেক কঠিন রাস্তা পার হতে হয়েছে তাঁদের। তাঁদের প্রেমটা খানিকটা বলিউডের সিনেমার গল্পের মতোই। রূপকথা বললেও ভুল হবে না।

মাত্র ২৫ বছর বয়সে বিয়ে করেছিলেন। বলিউডে পাকাপাকিভাবে জায়গা করে নেওয়ার আগেই গৌরির সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন শাহরুখ খান। বাকিটা তো ইতিহাস। প্রায় সবারই জানা। কিন্তু, বলিউড ‘বাদশা’ কেন এত আগেভাগে বিয়ে সেরে ফেললেন? কিছুদিন আগেই এই প্রশ্নের জবাব দিয়েছিলেন কিং খান।

এত তাড়াতাড়ি কেন বিয়ে করলেন? এক ভক্তের এই প্রশ্নের উত্তরে শাহরুখ কি বললেন জানেন? বলিউড ‘বাদশা’ বলেন, ‘ভাই লাভ অর লাক কাভি ভি আজ যাতে হ্যায়। সো বোথ কেম আর্লি উইথ গৌরি’। অর্থাত ভালবাসা যেমন মানুষের জীবনে যখন তখন এসে হাজির হয়, তেমনি ভাগ্যের চাকাও যে কোনও সময় ঘুরে যেতে পারে। আর তাঁর জীবনে ভালবাসা এবং ভাগ্যের চাকা একই সঙ্গে ঘুরে গিয়েছিল গৌরির আগমনে। শাহরুখ খানের ওই অকপট উত্তরের পরই তাঁর ভক্তরা উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়েন। শাহরুখ খান যে কত সহজে সোজা সাপ্টাভাবে তাঁর ব্যক্তিগত জীবকে খোলা খাতার মত তুলে ধরেছেন, তা আরও একবার স্পষ্ট হয়ে যায়।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৪ সালে একটি পার্টিতে হাজির হয়ে গৌরির সঙ্গে প্রথম পরিচয় হয় শাহরুখ খানের। সেসময় শাহরুখের বয়স ছিল মাত্র ১৮। আর গৌরী আরও ছোট। অন্য একটি ছেলের সঙ্গে পার্টিতে নাচছিলেন গৌরী। সেময়ই শাহরুখের চোখ গিয়ে পড়ে গৌরীর উপর। যদিও সেসময় শাহরুখ লাদুক হওয়ায় তিনি কিছুতেই গৌরীকে তাঁর সঙ্গে নাচের প্রস্তাব দিতে পারছিলেন না। অবশেষে যখন বললেন, তখন গৌরী রাজি হননি। গৌরী স্পষ্ট জনিয়ে দেন, তিনি আগ্রহী নন বয়ফ্রেন্ডের জন্য অপেক্ষা করছেন।

যদিও সেদিন গৌরীর সঙ্গে যে যুবকটি ছিলেন তিনি আদপে গৌরীর দাদা। পরে যখন শাহরুখ বিষটি জানতে পারেন, তিনি নাকি গৌরীকে বলেছিলেন, ‘মুঝে ভি আপনা ভাই সামঝো’। তারপর ঘটে গেছে আরও অনেক কিছুই। দুজনেই একে অপরের প্রেমে হাবুডুবু খেতে শুরু করেন। বেশ কিছুদিনের সম্পর্কের পর ১৯৯১ সালের ২৫ অক্টোবর গৌরির সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন শাহরুখ খান।

এরপর ‘দিল আসনা হ্যায়’-এর শুটিংয়ের সময়ই গৌরির সঙ্গে মধুচন্দ্রিমাও সেরে নেন শাহরুখ খান।