খেলাধুলা

লিঙ্গ বৈষম্যের অভিযোগে বিদ্ধ বার্সেলোনা!

প্রথমবারের মতো সম্মিলিতভাবে পুরুষ ও নারী ফুটবল দলকে সফরে পাঠাতে গিয়ে বিমানে আসন বিন্যাস নিয়ে চরম সমালোচনার মুখে পড়েছে বার্সেলোনা। যুক্তরাষ্ট্র সফরে যাওয়া পুরুষ দলকে বিমানের অগ্রভাগে বিজনেস ক্লাসের আসন বরাদ্দ দিলেও নারী দলের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে পেছনের দিকের ইকোনমি ক্লাস।

সফরকারী দল দুটির বিমান যাত্রার ছবি ও ভিডিও অনলাইনে প্রকাশ করেই বিপাকে পড়ে গেছে স্পেনের জায়ান্ট ক্লাবটি। ছবি ও ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, নারী দল ইকোনমি ক্লাসে বসে আছে আর পুরুষ দল বিজনেস ক্লাসে! এতেই বৈষম্য নিয়ে হৈচৈ শুরু হয়ে গেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। বিশেষ করে নারী দলের সমর্থকরা এর সমালোচনায় মেতে উঠেছে।

একজন সমর্থক তার টুইট বার্তায় লিখেছে, ‘দলীয় অধিনায়কদের বিজনেস ক্লাসের একটি ছবি ছিল। তাও পুরুষ দলের বাকী সদস্যদের বিজনেস ক্লাসে আসন গ্রহনের আগে। আর নারী দলকে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে ইকোনমি ক্লাসে।’ 

বার্সা ফুটবলারদের বিমান যাত্রার এমন কয়েকটি ছবি ছড়িয়ে পড়ার পর শুরু হয় বিতর্ক। ছবি : স্কাই নিউজ

এতে বলা হয়, ‘যদি নারী দলের কেউ বিজনেস ক্লাসে থাকত তাহলে চোখে না পড়ার কথা নয়। বার্সেলোনা যাদি বলে থাকে যে তারা সমতায় বিশ্বাসী, তাহলে এখানে আসন বরাদ্দও সমতার ভিত্তিতে হতো।’

অবশ্য নারী দলের সদস্য অ্যালেক্সিয়া পুটেলাস বলেছেন, ‘বিমানে নারী দলের আলাদা জায়াগায় থাকার কারণ হচ্ছে, দলটির সফরের সিদ্ধান্তটি নেয়া হয়েছে অনেক পরে। এর আগেই বিমানটি ভাড়া করা হয়েছিল। সেখানে পুরুষ দলের আসনও বরাদ্দ হয়ে গিয়েছিল।’

এদিকে ক্রীড়া বিষয়ক দৈনিক মার্কার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিমানের অগ্রভাগে আসন ছিল মাত্র ৩৬টি। আর প্রত্যেক নারী সদস্য তাদের যাত্রা আরামদায়ক করার জন্য তিনটি করে আসনের বরাদ্দ নিয়েছিল।

বার্সেলোনার সহ-সভাপতি জোসেপ ভিভেস এক বিবৃতিতে বলেন, ‘আমাদের নেওয়া পদক্ষেপের বিষয়ে ভালোভাবে পর্যালোচনা না করেই বিতর্ক শুরু হয়ে গেছে। ক্লাবটি একটি বিমান ভাড়া করেছিল। তবে শুরুর দিকে নারী দল সফরে যাবার কথা ছিল না। এটি শুধুমাত্র একটি লজিস্টিক সমস্যা, কোনো বৈষম্য নয়।’