খেলাধুলা

রোনালদোর অপেক্ষা বাড়ার রাতে কষ্টের জয় বার্সার

দুই হাত ওপরে তুললেন হতাশার ভঙ্গিতে। মুখের হাসিতেও মিশে রইল অসহায়ত্ব। নিশ্চিত গোল না হওয়ার পর ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর এমন প্রতিক্রিয়া তো দেখা গেছে কতবারই! পরশু এর পুনরাবৃত্তির পরপরই হয়তো তাঁর মনে পড়ল, এটি নতুন ক্লাব, নতুন সংস্কৃতি। তাঁর মিসের পরও সতীর্থ মারিও মান্দজুকিচ যে গোল দিয়েছেন, সেটি উদ্‌যাপন করাই তাই শ্রেয়। উৎসবে তাই সবার সঙ্গে মিশে যান রোনালদো।

লািসওর বিপক্ষে জুভেন্টাসের ২-০ গোলের জয় শেষেও তাঁর মুখে হাসি। আড়ালের বেদনা অবশ্য লুকানো যাচ্ছে না তাতে। সিরি ‘এ’তে দুটি ম্যাচ হয়ে গেল অথচ কোনো গোল করতে পারেননি এখনো—রোনালদোর প্রাণখুলে হাসার সুযোগ নেই তাই। হলেনই বা তিনি পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী, কিন্তু ৩৩ বছর বয়সে নতুন এসে প্রথম গোলের জন্য পর্তুগিজ মহাতারকার ওপর তাই চাপ বাড়ছে ক্রমশ।

প্রথমার্ধে মিরালেম পিয়াচিনের দারুণ গোলের পর ৭৫তম মিনিটে মান্দজুকিচের লক্ষ্যভেদে জয় নিশ্চিত ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের। যে জয়ে একটাই খচখচানি—রোনালদোর গোল না পাওয়া।

তাতে অবশ্য চিন্তিত নন জুভ কোচ মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রি। বরং টানা দ্বিতীয় জয়ে সন্তুষ্ট, ‘ক্রিস্টিয়ানো আমাদের সঙ্গে ট্রেনিং করছে ১৫ দিন। ও বুঝতে পারছে লা লিগার চেয়ে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ একেবারে আলাদা। জুভেন্টাসের ডিএনও বুঝতে পারছে ধীরে ধীরে। সবাই ক্রিস্তিয়ানোর গোলের অপেক্ষা করছে। সেটি না হলেও ওর পারফরম্যান্সে আমি সন্তুষ্ট। আর শিরোপা জয়ের সরাসরি এক প্রতিপক্ষকে আজ হারানোটাও দারুণ ব্যাপার।’ সিরি ‘এ’তে পরশুর অন্য ম্যাচটি ছিল রোমাঞ্চে ঠাসা। যেখানে ৪৯ মিনিটে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় এসি মিলান। এর মধ্যে মিডফিল্ডার জাকেমো বোনাভেনতুরার দুই পা শূন্যে তুলে ডান পায়ের ভলির গোলটি তো অনেক দিন মনে রাখার মতো। ওই অবস্থা থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে নাপোলি ম্যাচ জিতে নেয় ৩-২ গোলে। পিয়েতর জিলেনেস্কির জোড়া গোলের পর বদলি হিসেবে নামা দ্রিস মের্তেনসের ৮০তম মিনিটের লক্ষ্যভেদে জয় পায় কার্লো আনচেলত্তির দল।

স্প্যানিশ লা লিগায় ভায়াদোলিদের বিপক্ষে বার্সেলোনার সহজ জয়ই ছিল প্রত্যাশিত। তা জিতেছে বটে বার্সা, তবে তা সহজে নয়। সেটি প্রতিপক্ষের ফুটবলীয় বীরত্বের কারণে নয়, মাঠের ভয়ংকর দুরবস্থার জন্য। মাত্র চার দিন আগে মাঠের ঘাসের অংশ স্থাপন করা হয়েছে যে! খেলার মধ্যে অনেকবারই ওই ঘাসের চৌকোনা অংশ উঠে আসতে দেখা গেছে। এমন মাঠে সহজাত খেলা সম্ভব না; ফুটবলারদের ইনজুরির আশঙ্কাও থাকে। বার্সেলোনাভিত্তিক দৈনিক ‘মুন্দো দেপোর্তিভো’ তো ভায়াদোলিদের মাঠকে ‘আলুক্ষেত’ হিসেবেই বর্ণনা করেছে।

এমন মাঠ থেকে জয় নিয়ে ফেরাটা তাই স্বস্তির। ৫৭তম মিনিটে ওসমান দেম্বেলের করা একমাত্র গোল হয়ে যায় ম্যাচের ফল নির্ণায়ক। তবে জিতেই সব ভুলে যাচ্ছে না বার্সা। মাঠের দুরবস্থা নিয়ে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ জানাবে তারা। ভায়াদোলিদের ওপর তাই নেমে আসতে পারে আরো শাস্তি। লা লিগার আরেক ম্যাচে আতলেতিকো মাদ্রিদ ১-০ ব্যবধানে হারিয়েছে রায়ো ভায়েকানোকে। ৬৩তম মিনিটে জয়সূচক গোলটি আতেয়ান গ্রিয়েজমানের করা।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে এককভাবে উঠে গেছে লিভারপুল। ম্যানচেস্টার সিটির ড্রয়ের দিনে পরশু তারা তুলে নিয়েছে টানা তৃতীয় জয়। মো সালাহর গোলে ব্রাইটনকে ১-০ ব্যবধানে হারায় ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। অন্যদিকে লিগের তৃতীয় ম্যাচে এসে প্রথম জয় তথা প্রথম পয়েন্টের মুখ দেখে আর্সেনাল। ওয়েস্টহামের বিপক্ষে পিছিয়ে পড়ার পরও ৩-১ ব্যবধানে জিতেছে তারা। ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে টানা তৃতীয় জয়ের পথে অজিকে ঠিক একই ব্যবধানে হারিয়েছে প্যারিস সেন্ত জার্মেই। গোলদাতা তাদের তিন তারকা—নেইমার, এদিনসন কাভানি ও কিলিয়ান এমবাপ্পে। এএফপি