বিনোদন

যে কারণে শ্রীদেবীর বিকল্প কেউ হতে পারবে না…

ফেব্রুয়ারিতে সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেছেন ভারতীয় সিনেমার প্রথম নারী সুপারস্টার শ্রীদেবী। দুবাইয়ে এক পারিবারিক অনুষ্ঠানে গিয়ে আকস্মিকভাবে মারা যান। এই প্রয়াণে গোটা দেশে শোকের ছায়া নেমে এসেছিল। শিশু শিল্পী থেকে শুরু করে বলিউডের শীর্ষে পৌঁছেছিলেন শ্রীদেবী। আবার আচমকা বিয়ের পর অভিনয়ে ইতি টেনে দুই মেয়েকে মানুষ করেন। ফের ২০১২ সালে বলিউডে কামব্যাকে চমকে দেন।

নারী কেন্দ্রিক সিনেমা তাঁকে দিয়ে শুরু
বলিউডে ট্রেন্ড হল পুরুষরাই সিনেমার প্রোটাগনিস্ট। নারীরাও যে সমান ভূমিকা পালন করতে পারেন তা শ্রীদেবী দেখিয়ে দিয়েছিলেন। তাঁকে মাথায় রেখেই স্ক্রিপ্ট তৈরি হয়। চাঁদনি, নাগিন এই সিনেমাগুলিতে অভিনয়ের ছাপ ফেলে যান শ্রীদেবী।

অনবদ্য নৃত্যকলা
নৃত্যশিল্পী হিসাবে শ্রীদেবী অসাধারণ ছিলেন। মিস্টার ইন্ডিয়া সিনেমার হাওয়া হাওয়াই হোক অথবা নাগিন সিনেমার নাচ- শ্রীদেবী তাঁর আগের লেজেন্ড রেখা, ওয়াহিদা রেহমান, বৈজয়ন্তীমালার সঙ্গে একাসনে নিজেকে তুলে নিয়ে এসেছেন।

নানাবিধ গুণ
চরিত্রায়নের দিক থেকে শ্রীদেবী অত্যন্ত ভার্সাটাইল শিল্পী ছিলেন। চরিত্রের মধ্যে নিজেকে সঁপে দিতেন। লমহে, সদমা, চাঁদনি সিনেমায় শ্রীদেবীর অভিনয় আজও অমর হয়ে রয়েছে।

কেতাদুরস্ত
ফ্যাশনিস্টা হিসাবে নিজের সময়ে খ্যাতি ছিল শ্রীদেবীর। অন স্ক্রিন যেমন সুন্দরী ছিলেন, অফ স্ক্রিনও ছিলেন একইরকম মোহময়ী। কীভাবে নিজেকে ক্যারি করতে হয় তা শ্রীদেবী খুব ভালো জানতেন।

কমেডিতে দুরন্ত
শুধু সিরিয়াস রোলই নয়, কমেডিতেও দুরন্ত ছিলেন শ্রীদেবী। গম্ভীর চরিত্র যতটা পারদর্শিতার সঙ্গে করতে পারতেন, ঠিক ততটাই সাবলীলভাবে করতে পারতেন কমেডি চরিত্র। সেই প্রমাণ তিনি চালবাজ, মিস্টার ইন্ডিয়ার মতো সিনেমায় দিয়ে গিয়েছেন।