বিনোদন

যে আক্ষেপ রয়ে গেলো মনীষার

যৌবনে পাহাড়ি পাগলা ঝোরার মতোই উচ্ছল, উদ্দাম ছিলেন। স্নিগ্ধ রূপ, ভরন্ত যৌবনা, চনমনে মনীষা কৈরালা বলিউডে পা দিয়েই তাই সবার ‘ব্লু আই’ ছিলেন। পরের পর ছবি করার পাশাপাশি একের পর এক প্রেমেও পড়েছেন। কিন্তু সংসার করা হয়নি।

সবার মতোই সংসারী হয়ে ‘মা’ ডাক শোনার ইচ্ছে ছিল তারও। ‘মা’ হয়ে সন্তানকে পরিপূর্ণ ভালবাসা দেওয়ার ইচ্ছে ছিল। তাকে মানুষের মতো মানুষ করার ইচ্ছে ছিল। আর সেই কারণেই বিবাহবিচ্ছেদ হওয়া সত্ত্বেও মা হওয়ার কথা ভেবেছিলেন বলি অভিনেত্রী মনীষা কৈরালা।

একটি শিশুকন্যাকে দত্তক নিতে চেয়েছিলেন তিনি। গত বছর ‘মুম্বাই মিরর’–কে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে জানিয়েও ছিলেন সে কথা। কিন্তু হঠাৎই সেই সিদ্ধান্তে দাড়ি টানলেন নায়িকা।

কিন্তু কেন এই নীতি বদল? হঠাৎ কেন পিছিয়ে এলেন মা হওয়ার সিদ্ধান্ত থেকে? মনীষা বলছেন, তিনি এখন খুবই ব্যস্ত। নিজের এই ব্যস্ত জীবনে ছোট্ট ওই শিশুকে নিয়ে আসতে চান না তিনি। তার মন সায় দিচ্ছে না। বরং যেন সাবধান করে বলছে, যখন এতরকম কাজ তোমাকে পিছু টানছে, তখন ‘মা’ হওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া ঠিক নয়।

নানা পাটেকরের সঙ্গে সম্পর্কে দাঁড়ি টানার পর ২০১০–এ শিল্পপতি সম্রাট দাহালকে বিয়ে করেছিলেন মনীষা। ২০১২–য় তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। তারপর থেকে অবশ্য নায়িকার সঙ্গে অন্য কারও সম্পর্কের কথা শোনা যায়নি। বিচ্ছেদের পরেই তার জরায়ুতে ক্যান্সার ধরা পড়ে। দীর্ঘ চিকিৎসার পর ২০১৫–তে এই মারাত্মক মারণ রোগের গ্রাস থেকে মুক্তি পান তিনি।