সারাদেশ

মরণ ফাদে পরিনিত হয়েছে ঝিনাইদহের সড়ক-মহাসড়ক গুলো !

এফপি

ডেস্কনিউজ; ঝিনাইদহের সড়কগুলো যেন মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয়েছে। প্রতিনিয়ত সড়ক দুর্ঘটনায় মানুষের জীবন বিপন্ন হচ্ছে। সড়ক মহাসড়কে এই মৃত্যুর মিছিল থামছে না কোনোভাবেই। অন্তত গত ৮ মাসে জেলার পরিসংখ্যান তাই বলছে।

পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৮ সালের ৮ মাসে ঝিনাইদহের ৬ উপজেলায় পরিবহন দুর্ঘটনা ও ট্রেনে কাটা পড়ে কমপক্ষে নিহত হয়েছেন ৪৫ জন। এর মধ্যে একজন পুলিশ কর্মকর্তাসহ রয়েছেন পাঁচজন কলেজ ছাত্র। এই ৮ মাসে সড়ক দুর্ঘটনায় সবচেয়ে বেশি মানুষ নিহত হন ঝিনাইদহ সদর উপজেলায়। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে শৈলকুপা। বিভিন্ন থানা ও পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে এই পরিসংখ্যান করা হয়।

সূত্র বলছে, এই সময়ের মধ্যে সড়ক দুর্ঘটনায় ঝিনাইদহ সদরে ২৫ জন, কালীগঞ্জে আটজন, শৈলকুপায় চারজন, কোটচাঁদপুরে তিনজন, মহেশপুরে একজন ও হরিণাকুন্ডুতে চারজন নিহত হয়েছেন।

ঝিনাইদহ বিআরটিএর সহকারী পরিচালক বিলাস সরকার জানান, ট্রাফিক আইন না মানা বা এ বিষয়ে অসচেতনতা,  যাত্রীদের অসর্তকতা, বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানো, চালকদের অদক্ষতা ও প্রশিক্ষণহীনতাই হচ্ছে দুর্ঘটনার মূল কারণ।