আর্ন্তজাতিক

ভিন ধর্মের যুবককে বিয়ে, গাছে বেঁধে তরুণীকে মার মাতব্বরদের

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভিন ধর্মের যুবকের প্রেমে পড়েছিলেন তরুণী৷ এটাই ছিল তাঁর ‘অপরাধ’৷ রীতিমতো সালিশি সভা বসিয়ে বিচার করা হল ওই তরুণীর৷ নিদান অনুযায়ী গাছে বেঁধে বেধড়ক মারধর করেন গ্রামবাসীরা৷ নৃশংস এই ঘটনার সাক্ষী বিহারের নওদার রাজৌলি গ্রাম৷

তরুণীর বাবা স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য৷ জানা গিয়েছে, ওই তরুণী ভিন ধর্মের এক যুবকের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন৷ দু’জনের সম্পর্কে অসম্মতি ছিল পরিবারের৷ কিন্তু পরিবারের কথা মেনে নিতে রাজি হননি তরুণী৷ বিয়ে করতে ৩০ সেপ্টেম্বর বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান তিনি৷ প্রেমিকের সঙ্গে নিজের বাড়িরই কাছে দু’জনে থাকতেও শুরু করেন তারা৷ প্রথমে মেয়ে নিখোঁজ হয়ে যান৷ পরে যদিও পঞ্চায়েত সদস্য বাবা ওই তরুণীর খোঁজ পেয়ে যান৷ এরপরই গ্রামে সালিশি সভা বসানো হয়৷ সালিশি সভায় উপস্থিত ছিল তরুণী, তরুণীর বাবা, স্বামী-সহ গ্রামের মাতব্বররা৷ ভিন ধর্মের যুবককে বিয়ে করে অপরাধ করেছে মেয়ে, এই অভিযোগে তাকে শাস্তির নিদান দেয় তারা৷ নিদান অনুযায়ী, দীর্ঘক্ষণ গাছে বেঁধে রাখা হয় ওই তরুণীকে৷ এরপরই চলে মারধর৷ মারধরের সময় বেশ কয়েকবার অচৈতন্যও হয়ে পড়েন তরুণী৷ তাতেও মারধরের হাত থেকে রেহাই পাননি তিনি৷ মারধরের পর তরুণীর বাবা বলেন, ‘‘ভিন ধর্মের যুবককে বিয়ে করে অন্যায় করেছিল সে৷ তাই মেয়েকে এভাবে শাস্তি দেওয়া হয়েছে৷’’

অকথ্য অত্যাচারের জেরে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ওই তরুণী৷ এই মারধরের ভিডিও আপাতত সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল৷ এই ঘটনায় স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করেছে পুলিশ৷ আপাতত কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি৷ তবে তরুণীর বাবা-সহ অন্যান্য অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন নিগৃহীতার স্বামী৷