আর্ন্তজাতিক

ভারতে একই পরিবারের সাতজনের আত্মহত্যা

ভারতের রাঁচিতে একই পরিবারের সাতজন আত্মহত্যা করেছেন। জানা গেছে, তাদের মধ্যে দু’জন শিশুও রয়েছে। পুলিশ বলছে, বেসরকারি একটি সংস্থার কর্মী দীপক কুমার ঝা তার বাবা, মা, ভাই, স্ত্রী এবং সন্তানসহ আত্মহত্যা করেছেন।

পুলিশ বলছে, ওই পরিবার ভাড়া বাসায় থাকত। সেই বাসার মালিক এ মিশ্র জানান, ৪০ বছর বয়সী দীপক ঝা নিজের ব্যবসা শুরু করতে গিয়ে ঋণে জর্জরিত হয়ে পড়েছিলেন। তার ছোট ভাই রূপেশ ঝা কোনো কাজকর্ম করতেন না।

দুই ভাইয়ের মরদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করেছে পুলিশ। অন্যদের মরদেহ পাওয়া যায় ঘরের বিছানায়। দীপকের পুত্র এবং কন্যার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

তবে আত্মহত্যার ব্যাপারে কোনো নোট রাখা হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। আত্মহত্যার কারণ অনুসন্ধানের জন্য ইতোমধ্যেই তদন্ত শুরু হয়েছে।

রাঁচি পুলিশের তদন্তকারী কর্মকর্তা অনীশ গুপ্ত বলেন, প্রাথমিকভাবে, এটিকে একটি আত্মহত্যার ঘটনা বলে মনে করা হচ্ছে। তদন্ত শেষ হলে এ ব্যাপারে পুরোটা জানা যাবে।