লাইফস্টাইল

বিজ্ঞাপনের কপিক্যাট ‘ঝুমা’ বৌদি

‘জাট্যাক’ সুগন্ধির সেই বিজ্ঞাপনের কথা মনে পড়ে যেখানে একটি সদ্য বিবাহিতা মেয়ে খাটের ওপর ঘোমটা মাথায় বসে। প্রথমদিকে লজ্জায় চুপচাপ বসে থাকলেও হঠাত্‍ কোনও এক গন্ধ পেয়ে জানলার দিকে এগিয়ে গেল। পর্দা সরাতেই দেখল উল্টো দিকের বাড়িতে, একটি ছেলে ‘জ্যাটাক’ ডিওড্রেন্ট লাগাচ্ছে। সেই গন্ধ নাকে যেতেই মেয়েটির এমন মতোয়ারা হল যে ধীরে ধীরে গয়না গাটি খুলতে খুলতে বিয়ের আংটি পর্যন্ত খুলে ফেলল।

বিজ্ঞাপনটির মোরাল অফ দ্য স্টেরি এই ছিল যে ‘জ্যাটাক’ সুগন্ধি লাগালেই ছেলে যেকাউকে ইমপ্রেস করতে পারবে। এমনকি বিবাহিত মহিলাদেরও। সেইরকমই পন্থা অবলম্বন করল ‘ঝুমা বৌদি’র ঠাকুরপো। ডিও লাগিয়ে একই রকম ভাবে বৌদিকে খানিক মুগ্ধ করে ফেলেছিল, হঠাত্‍ই বৌদি আনল ট্যুইস্ট।

বিয়ের আংটি খুলতে গিয়েই এমন অস্থির করে তুলল ঠাকুরপোকে যে সে প্রায় বারান্দা থেকে প্রায় ঝাঁপ দিয়ে ফেলে আর কি। ভিডিওটি মুক্তি পেতেই শুরু হয়েছে শোরগোল। নেটিজেনরা সরাসারি কমেন্ট করে লিখেছে, “চিত্রনাট্যের এতই অভাব যে বিজ্ঞাপনগুলোকে হুবহু নকল করতে হচ্ছে?” প্রত্যেকটি দৃশ্য নকল করেছে ‘দুপুর ঠাকুরপো’র নির্মাতারা। এমনই অভিযোগ আনছেন সাইবারবাসী। এখানেই বিতর্কের শেষ নয়। এই ব্র্যান্ডের সুগন্ধির আরেকটি বিজ্ঞাপনও কপি করেছে। যেখানে দর্জির দোকানে এসে এক মহিলার হঠাত্‍ই নিজের লাজুক চরিত্র থেকে বেরিয়ে এসে হটনেস ছড়িয়ে দিচ্ছেন দোকানে। আসল ব্যাপারটা হল যে মহিলাটির ফিগারের মাপ নিচ্ছিল, সে মহিলাটি আসার আগেই ‘জাট্যাক’র ট্যালকম পাউডার লাগিয়েছিল। সেই ঠান্ডা স্পর্শের কারণে লাজুক বৌদির হট অবতার বেরিয়ে এলো।

এই প্রতিটি বিজ্ঞাপনকে চুরি করেছে ‘দুপুর ঠাকুরপো’, কারণ তাঁদের কাছে নতুন আইডিয়ার বড়োই অভাব। সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে এমন অভিযোগ উঠলেও তাঁদের দাবি এটা তাঁরা স্পুফ বানিয়েছেন। বিজ্ঞাপনগুলির প্রত্যেকটি দৃশ্য নকল করেছেন ঠিকই তবে গোটাটাই স্পুফ। নকল করেননি তাঁরা। স্পুফ মানেই, পুরোপুরি নকল করেও অতিরিক্ত কয়েকটি দৃশ্য ঢুকিয়ে চিত্রনাট্যটির কমিক হাস্যরস বারানো। ‘দুপুর ঠাকুরপো’র টিম আপাতত এই অযুহাতেই চালাচ্ছে চারিদিকে।

‘ওয়াইন্ড স্টোন’র আরেকটি বিজ্ঞাপনও কপি করেছে তাঁরা। সুগন্ধির একটি বিখ্যাত অ্যাড যেখানে দেখা যাচ্ছে বাঙালসি বনেদি বাড়িতে দশমীরদিন সিঁদুরখেলা হচ্ছে। আটপৌড়ে শাড়ি পরা একজন মহিলা দালানের মধ্যে দিয়ে দৌঁড়তে গিয়ে একজন লোকের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। লোকটি বেশ হ্যান্ডসাম। ‘ওয়াইল্ড স্টোন’র সুগন্ধি লাগিয়েছিল সেই ব্যক্তি। সেই গন্ধে ওই বাঙালি বৌদিও আকর্ষিত হয়।

এই বিজ্ঞাপনগুলির মধ্যে মিল হল প্রতিটি জায়গায় হট বৌদি রয়েছে। একেবারে ঝুমা বৌদির মতো। সেই এলিমেন্টটাকে নিয়েই ‘দুপুর ঠাকুরপো’ ও এই ভিডিওগুলো বানায়। এক একটি ভিডিওতে এক একজন ঠাকুরপোকে দেখানো হয়েছে। যে যতই বলুক যে নকল করা হয়েছে, অসংখ্য ঠাকুরপোরা ঝুমা বৌদির হটনেসে আবারও কুপোকাত।