জাতীয়

বিএনপির নির্বাচনে আসার ঘোষণায় বদলে গেল সচিবালয়

ভুবনবাংলা২৪ঃ দুপুরবেলার সচিবালয়। হঠাৎ করে বেশ কয়েকজন আমলার মধ্যে ছড়িয়ে পড়লো ঈদের আনন্দ। যে কেউ ধারণা করবে, নিশ্চয়ই চাকরিতে পদন্নোতি কিংবা বেতন বৃদ্ধির মতো কোনো ব্যাপার ঘটেছে। কিন্তু না। খোঁজ নিয়ে জানা গেল, আমলাদের এই আনন্দের উৎস বিএনপির নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ঘোষণা।

আজ রোববার দুপুরে পৃথকভাবে সংবাদ সম্মেলন করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় জোট একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়। যেহেতু এই দুটি জোটেরই মূল দল বিএনপি তাই এই ঘোষণার মধ্য দিয়ে অনেক জল্পনা-কল্পনার পর বিএনপির নির্বাচনে অংশগ্রহণ নিশ্চিত হলো। আর বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে জানাতেই বদলে গেল সচিবালয়ের পরিস্থিতিও। যারা এতদিন আওয়ামী লীগের ‘বিশ্বস্ত সৈনিক’ ছিল তাঁরা আনন্দের আতিশয্যে নিজেদের মুখোশ খুলে ফেললেন। নির্বাচনে অংশ নিলেই বিজয় লাভ নিশ্চিত নয়। কিন্তু অনেক আমলা একে অন্যের সঙ্গে কোলাকুলি করা ও একে অন্যকে মিষ্টিমুখ করানোর মাধ্যমে যেন সম্ভাব্য বিজয়ই উদযাপন করে ফেললেন। এমনকি সচিবালয়ে এমন কথাও শোনা গেছে, ‘এবার নির্বাচন হোক। সবগুলো আওয়ামী লীগারকে ধরবো।’

বিএনপির নির্দলীয়, নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের বহুদিনের পুরনো দাবি পূরণ করেনি সরকার। তবুও নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্তকে বিএনপির ছোটখাটো একটি পরাজয় হিসেবেই বিবেচনা করা যায়। অথচ সেসব নিয়ে এই আমলাদের কোনো মাথাব্যথা লক্ষ্য করা যায়নি। বিএনপির নির্বাচনে যাওয়ার ঘোষণাকেই বিজয় মনে করে বহু আমলা উল্লাসে ফেটে পড়েন। কারণ তাঁরা মনে করছেন, এই নির্বাচনে অন্যরকম ফলাফল হবে। কেউ কেউ সাহসে বুক ফুলিয়ে বলছেন, কোনো অবস্থাতেই নির্বাচনে কারচুপি করতে দেওয়া হবে না। বরং বিএনপি নির্বাচনে জিতলে আওয়ামী  লীগের আস্থাভাজন আমলাদের কীভাবে শায়েস্তা করা হবে তারা এখন সে পরিকল্পনা করতে কাজে লেগে গেছেন। এই উদ্দেশ্যে সচিবালয়ে আওয়ামী পন্থীদের তালিকা প্রণয়নের কাজও শুরু হয়ে গেছে। জানা গেছে, এই কাজে নেতৃত্ব দিচ্ছেন পদন্নোতি বঞ্চিত কয়েকজন আমলা।

অথচ আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে গত ১০ বছরে পদন্নোতি পেয়েছেন উল্লেখযোগ্য সংখ্যক আমলা। সরকারি চাকরিতে বেতন-ভাতা বৃদ্ধির সিদ্ধান্তগুলোও এসেছে এই সরকারের আমলেই যার সুবিধা আওয়ামী বিরোধী আমলারাও পাচ্ছেন। কিন্তু প্রথম সুযোগেই নিজেদের আসল স্বরূপ দেখিয়ে ফেললেন তাঁরা। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সামনের দিনগুলোতে সচিবালয়ে কী পরিবর্তন হয় সেটাই এখন দেখার বিষয় বলে মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। সুত্রঃ বাংলা ইনসাইডার