বিনোদন

ফের ভক্তদের ঝলক দেখালেন ঐশ্বরিয়া

 বলিউডে খান সাম্রাজ্যের দৌরাত্ম্য নতুন নয়, তবে এবার সাম্রাজ্য খান খান করে দিতে আসছে নতুন খান। না, নতুন কোনো নায়ক নয়- সমানে সমানে টক্কর দিতে আসছে নতুন ছবি ‘ফ্যানি খান’। নয় কেন? এই ফ্যানি খানের সঙ্গে রয়েছে বিশ্বসুন্দরী রাই নন্দিনী ঐশ্বরিয়া, সমালোচক প্রশংসিত অভিনেতা রাজকুমার রাও, মেধাবী অভিনেত্রী দিব্যা দত্ত। আর কে এই ফ্যানি খান? লাস্ট বাট নট দ্য লিস্ট- চিরসবুজ অনিল কাপুর। নির্মাতা অতুল মাঞ্জেকারের এই ‘ফ্যানি খান’ নিয়ে দর্শক শ্রোতার আগ্রহের পারদটা চড়ে আছে নানা কারণে, আর তাই অপেক্ষা নতুন এক সুপার ডুপার হিট ছবির। ৩ আগস্ট মুক্তি পাচ্ছে ‘ফ্যানি খান’, তাই খান সাম্রাজ্য সাবধান!

২০০১ সালের সেরা বিদেশি ভাষার ছবি হিসেবে অস্কারে মনোনয়ন পেয়েছিল ডাচ ছবি ‘এভরিবডিস ফেমাস’। এই ছবির ছায়া অবলম্বনে নির্মিত ‘ফ্যানি খান’। ফেব্রুয়ারির শুরুর দিকে ফার্স্ট লুকেই বাজিমাত করে ছবিটি।

হবে না কেন? প্রথম দর্শনেই তো ছিলেন প্রিয়দর্শিনী নীলনয়না ঐশ্বরিয়ার ভিন্ন অবতার। আর জুলাইয়ের মাঝামাঝি ছবিটির টিজারে রহস্য আর গ্ল্যামারের জমাট আবেদনের মধ্যে শিল্প ও শিল্পীর অনন্য বোধ দর্শককে ভাবিয়ে তোলে, ‘ফ্যানি খান’ আর যাই হোক ‘ফানি’ খান নয়। টিজারেই জানা যায়, এটা প্রেমের গল্প নয়, অপহরণের কাহিনী। কিন্তু আসলে এর মাঝেই লুকিয়ে আছে প্রেম। টিজারের পাশাপাশি ছবির গানগুলোও ইতিমধ্যে মানুষের মুখে মুখে। সবমিলিয়ে আগস্ট মাসের শুরুটা হবে বক্স অফিস ধামাকা দিয়ে, তা বলে দিতে খুব একটা ভাবতে হয় না।

ঐশ্বরিয়া রাই। ২০১৬ সালে ‘অ্যায়ে দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিতে শেষ দেখা দিয়েছিলেন বচ্চনবধূ। এরপর বেশ কয়েকবার সম্ভাবনা প্রকট হলেও রূপালি পর্দায় তার দেখা মেলেনি। অবশেষে নতুন নির্মাতার ডেব্যু ফিল্ম পছন্দ হলো তার। সঙ্গে রয়েছেন অনিল কাপুর, ১৭ বছর আগে ‘হামারা দিল আপকে পাস হ্যায়’ ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করেছিল দু’জনে। অবশ্য ‘ফ্যানি খান’ ছবিতে অনিল তার নায়ক নয়, অন্য এক উঠতি গায়িকার বাবা! বাবা ফ্যানি খান মেয়েকে নাম করা সঙ্গীতশিল্পী বানাতে চান। মেয়ের স্বপ্ন পূরণের জন্য সঙ্গীতশিল্পী ববি সিংকে অপহরণ করেন। আর তারপর, গুনতে থাকুন অপেক্ষার প্রহর।

টিজারে ফ্যানি খানের আকৃতি-প্রকৃতি তেমন কিছুই বলা হয়নি। রাজকুমার রাও তবু বলেছেন, এ নামের অনেক মানে। ইনি হতে পারেন একজন কলাকার। একজন গায়ক। একজন হাস্যরস উপস্থাপক। কিংবা কেবলই একজন ভাঁড়। তবে এ গল্পের ফ্যানি খান কিন্তু একেবারেই আলাদা। ‘ফ্যানি খান’ নামের মাত্রাই পাল্টে দিয়েছেন যিনি, তিনি অনিল কাপুর। পোস্টার রিলিজের পরেই সবাই মুখিয়ে ছিলেন নতুনরূপে অনিল কাপুরকে দেখার জন্য, দেখে চমকেও গেছেন সবাই। টিজার দেখে প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, এ ছবিতে ট্যাক্সি ড্রাইভারের ভূমিকায় দেখা যাবে অনিল কাপুরকে। আর তিনি মহম্মদ রফি এবং শাম্মি কাপুরের একটু বেশিই ভক্ত, তাদের প্রণাম করে গাড়ির স্টিয়ারিংয়ে হাত দিতে দেখা দিতে গেছে তাকে। আবার বাড়ির ছাদে বসে তন্ময় হয়ে স্যাক্সাফোনও বাজিয়েছেন তিনি। তাই ‘ফ্যানি খান’ কোন চমক নিয়ে পর্দায় আসছে, তা ধারণা করা যাচ্ছে না। কিছু দিন আগেই নিজের বলিউডি কেরিয়ারের ৩৫ বছর সেলিব্রেট করেছেন মিস্টার কাপুর। তার পরেই টুইটারে ‘ফ্যানি খান’-এর পোস্টার শেয়ার করেছিলেন তিনি।

ক্যাপশনে লিখেছিলেন, ফ্যানি খানের চোখে রয়েছে অনেক স্বপ্ন, আর বুকে আছে অনেক সুর।

‘ফ্যানি খান’ মূলত মিউজিক্যাল কমেডি। আর তাই গানের টানে কানটা খাড়া হবেই। ছবির মিউজিক করেছেন মেধাবী কম্পোজার অমিত ত্রিবেদী।

সুনিধি চৌহান, দিব্য কুমার আর মোনালি ঠাকুরের সঙ্গে গানে কণ্ঠ দিয়েছেন স্বয়ং অমিত ত্রিবেদী। ইতিমধ্যে ‘মোহাব্বত’ আর ‘হালকা হালকা’ গান দুটি রীতিমতো জনপ্রিয়। তবে মুক্তির পরও বদলে গেছে ‘মেরে আচ্ছে দিন কাব আয়েঙ্গে’ গানটির কথা। জীবন সংগ্রামী ফ্যানি খানের জীবন ও স্বপ্নে রাজনৈতিক বিতর্ক ঢুকে যাওয়ার পর গানটি এখন হয়ে গেছে ‘মেরে আচ্ছে দিন আব আয়েঙ্গে’। অবশ্য গানের কথা বদল এই প্রথম নয়, ঐশ্বরিয়ার পছন্দ না হওয়ায় ছবির আইটেম গানের কথা পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়েছিলেন পরিচালক ও গীতিকার। নারীদের অবমাননা করে বিভিন্ন শব্দ ব্যবহার করায় ‘ভ্যাভিকল সে’ গানটি নিয়ে বেশ বিতর্ক হয়েছিল। সেই গানটির সঙ্গে মিল থাকায় আপত্তি করেন ঐশ্বরিয়া। পরে তাতে পরিবর্তন করা হয়। রাকেশ ওমপ্রকাশ মেহরা, ভূষণ কুমার, অনিল কাপুরের মতো দূরদর্শী চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্বের প্রযোজনায় নির্মিত ‘ফ্যানি খান’। এই ছবির সঙ্গে একই দিনে মুক্তি পাচ্ছে ইরফান খান অভিনীত ছবি ‘কারওয়ান’ এবং ঋষি কাপুর ও তাপসী পান্নু অভিনীত ছবি ‘মুলক’। সাফল্য কিংবা ব্যর্থতা বিচার করবে সময়, তবে দর্শকের অপেক্ষার পালা প্রায় শেষের দিকে। দেখা যাক, বক্স অফিসে ‘ফ্যানি খান’ কত রিখটার স্কেলে ঝাঁকুনি দেয়।