বিনোদন

নিজেকে নতুন করে তৈরি করছেন কৌশানী

পনেরো দিন টানা ভাত না খেয়ে ছিলেন আর দিনটা শুরু হতো ডাবের জল খেয়ে। কী মনে হচ্ছে? কোনও বলিউড সেলেব নতুন কোনও ছবির জন্য এমন কসরত করছেন! না, ভুল ভাবছেন। খোদ টালিগঞ্জেই এমন ব্যতিক্রমী হয়ে উঠেছেন এক নায়িকা।

কৌশানী মুখোপাধ্যায়। কিন্তু পরিচালক বা প্রযোজকের নির্দেশ মেনে নয়, নিজের তাগিদেই নতুন করে গড়েপিটে নিতে চেয়েছেন নিজেকে। বিশেষ কোনও চরিত্রের প্রয়োজনেও নয়, তিনটে ছবিতে ছ’টি গানের শুটিং করতেই এই পথ বেছেছিলেন কৌশানী।

রহস্যটা উন্মোচন করলেন নায়িকা নিজেই, বলিউডে এ রকমটা আকছার হয়। আমাদের এখানে এখনও চল হয়নি। কিন্তু আমি বলিউড ট্রেন্ড ফলো করতে চেয়েছি।

কিন্তু বলিউডের ট্রেন্ড ধরার চেষ্টার পাশাপাশি ছিল নিজেকে নতুন লুকে দেখার ইচ্ছেও।

‘চেয়েছি, আমার আগের কাজগুলোর থেকে এই কাজগুলো যেন একেবারেই আলাদা হয়। আমার লুক, চেহারা সব যেন নতুন হয়। সেই ইচ্ছেতেই আমি বিশেষ ডায়েট মেনে চেহারা টোনড করেছি।’

আর তাই চর্বিযুক্ত খাবার একেবারে বাদ দিয়েছিলেন তিনি। দু’ঘণ্টা অন্তর খেতেন। মুসাম্বি লেবুর রস, ডিম সিদ্ধ, সুপ থাকত খাদ্যতালিকায়। তবে ডায়েটের পাশাপাশি ফিটনেসের উপরেও জোর দিয়েছিলেন। দিনে তিন ঘণ্টা নিয়ম করে সময় দিতেন জিমে।

মুম্বাই ও থাইল্যান্ডে ছ’টি গানের শুটিং করে সবেমাত্র কলকাতায় ফিরেছেন কৌশানী। ‘জামাই বদল’, ‘গার্লফ্রেন্ড’, ‘হইচই আনলিমিটেড’ তিনটে ছবিতে ছ’টি গান। সমস্ত গানের শুটিং করতে সময় লেগেছে ছ’দিন।

শুটিং শেষ হলেও কৌশানী এখনও ডায়েট, ফিটনেস ট্রেনিং করে চলেছেন। বললেন, আমি বরাবর ফিটনেস কনশাস। এখন অতটা কঠোর নিয়ম পালন না করলেও মোটামুটি একটা রুটিনেই চলছি।