খেলাধুলা

দ্রুত জনপ্রিয়তা হারাচ্ছেন নেইমার!

রাশিয়া বিশ্বকাপের ব্যর্থতা ব্রাজিল সুপারস্টার নেইমারের ক্যারিয়ারে মারাত্মক প্রভাব ফেলেছে। এমনিতেই মাঠে অপ্রয়োজনীয় ‘ডাইভ’ দিয়ে সমালোচিত হয়েছেন; একইসঙ্গে তার জনপ্রিয়তা দ্রুত নিম্নগামী হয়েছে। এখন যে পরিস্থিতি, তাতে মেসি এবং রোনালদোর সঙ্গে তার নাম উচ্চারিত নাও হতে পারে! রাশিয়া বিশ্বকাপের পর ফুটবলার নেইমারের ইমেজ ভয়ানক ধাক্কা খেয়েছে।

বিশ্বকাপে তার প্লে-অ্যাক্টিং নিয়ে প্রবল সমালোচনা হয়েছে চারপাশে। সে তুলনায় নেইমারের পারফরম্যান্স নিয়ে তেমন কোনো আলোচনা নেই। মাঠে নেইমারের ডাইভ নিয়ে অনেকে বিরক্ত হয়েছে। সেটাই তার জনপ্রিয়তায় প্রভাব ফেলেছে। তার উপর মৌসুমের অর্ধেক সময় চোটের কারণে খেলতে পারেননি। সেজন্য ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলারের তালিকা থেকেও তাকে বাদ পড়তে হয়েছে।

সোশ্যাল সাইটে নেইমারকে নিয়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বিভিন্ন পোস্ট নিয়ে গবেষণা চালিয়েছে ইংল্যান্ডের এক সংস্থা ক্যান্টর স্পোর্টস। তাতেই উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য।

বিশ্বকাপ শুরুর ২ সপ্তাহ আগে ১ জুন থেকে বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার ৩ দিন পর অর্থাৎ ১৮ জুলাই পর্যন্ত গবেষণার জন্য বেছে নিয়েছিল ক্যান্টর স্পোর্টস। এই সময় তারা নেইমারকে নিয়ে সব ধরনের পোস্ট পর্যালোচনা করেছে। সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ খেলেছে ব্রাজিল। এই ম্যাচের আগে নেইমারকে নিয়ে মাত্র ২৮ শতাংশ নেতিবাচক পোস্ট ছিল। কিন্তু প্রথম ম্যাচের পরই সেটা বেড়ে দাঁড়ায় ৬১ শতাংশে। শেষ আটে ব্রাজিল ছিটকে গেলে নেইমারকে নিয়ে নেতিবাচক পোস্টের হার ছিল সর্বোচ্চ ৬৮ শতাংশ।

বিশ্বকাপে নেইমার মাঠে নামার আগে তাকে নিয়ে ৫১ শতাংশ পোস্ট ছিল নিরপেক্ষ। প্রশংসা করে ২১ শতাংশ পোস্ট হয়েছে। কিন্তু কোয়ার্টার ফাইনালে বেলজিয়ামের কাছে হেরে যাওয়ার পর নেইমারের প্রশংসাসূচক পোস্ট নেমে এসেছে তলানিতে মাত্র ১ শতাংশে।

এই গবেষণায় আরও দাবি করা হয়েছে, নেইমারকে নিয়ে প্রতি ১০০ পোস্টের মধ্যে গড়ে মাত্র ১টি ছিল ইতিবাচক। আশ্চর্যের ব্যাপার, সোশ্যাল সাইটে নেইমারকে নিয়ে সবচেয়ে বেশি সমালোচনা হয়েছে তার জন্মভূমি ব্রাজিলে! শুধু সোশ্যাল সাইট নয়; ব্রাজিলিয়ান মিডিয়াও ব্যাপক ক্ষিপ্ত এই ‘ওয়ান্ডার বয়’ এর ওপর।