বিনোদন

তনুশ্রী সমকামী!

রাখি সাওয়ান্ত ও তনুশ্রী দত্ত

তনুশ্রী দত্ত বনাম রাখি সাওয়ান্তের ঝগড়া ক্রমেই জমে উঠেছে। একে অপরের দিকে কাদা ছিটাতে ব্যস্ত এখন তাঁরা। তনুশ্রী এরই মধ্যে রাখির বিরুদ্ধে ১০ কোটি রুপির মানহানির মামলা করেছেন। এরপর চুপ করে বসে থাকেননি রাখি। তিনিও তনুশ্রীর বিরুদ্ধে ৫০ কোটির মানহানির মামলা করার হুমকি দিয়েছেন। সম্প্রতি বলিউডের ‘আইটেম গার্ল’ রাখি তনুশ্রীর বিরুদ্ধে আরও গুরুতর অভিযোগ করেছেন। রাখির মতে, তনুশ্রী সমকামী।

বলিউডের একসময়ের তারকা ও সাবেক ভারত সুন্দরী তনুশ্রী দত্ত হিন্দি ছবির শক্তিমান অভিনেতা নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ করেছেন। আর তা শুনে খেপে যান রাখি। এরপর তিনি বলেছেন, তনুশ্রী মাদকাসক্ত। রাখির বক্তব্য নানা পাটেকার মোটেও দোষী নন। তনুশ্রী মাদকের নেশায় চুর থাকতেন। সাবেক ভারত সুন্দরী এই অপবাদ মেনে নিতে পারেননি। তাই রাখির বিরুদ্ধে তিনি ১০ কোটি রুপির মানহানির মামলা করেছেন। এদিকে আবার রাখিও তনুশ্রীর বিরুদ্ধে ৫০ কোটির মামলা করবেন বলে শাসিয়েছেন। কারণ তনুশ্রী তাঁকে নীচুস্তরের মানুষ বলেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে রাখি সাওয়ান্ত

এখানেই থেমে থাকেননি রাখি। তিনি সংবাদ সম্মেলনে করে তনুশ্রীর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ করেছেন। রাখির অভিযোগ, তনুশ্রী তাঁর সঙ্গে নোংরামি করেছেন। এই সংবাদ সম্মেলনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হচ্ছে। এখানে রাখি হাজির হয়েছিলেন চড়া মেকআপ করে এবং গাড় গোলাপি রঙের শাড়ি পরে। তা-ই নয়, তিনি মাথায় ঘোমটাও দিয়েছিলেন। রাখি বলেন, ‘আমি এবার “#সি টু” মুভমেন্ট শুরু করতে চাই। দুনিয়ার সামনে এবার সেই সত্যটা বলতে চাই, যা ১২ বছর লুকিয়ে রেখেছিলাম। তনুশ্রী আমার সঙ্গে বারবার অপকর্ম করেছে। এখন আপনারা নিশ্চয় ভাবছেন, একটা মেয়ে অন্য মেয়ের সঙ্গে কী ধরনের ব্যবহার করতে পারে। আসলে তনুশ্রী সমকামী। ও আমাকে “পার্টি”তে নিয়ে যেত। তনুশ্রী নিজে নেশা করত। আর সিগারেটের ভেতর থেকে তামাক বের করে তার জায়গায় অন্য নেশার পদার্থ মেশাত। ও আমাকে জোর করে এসব খাওয়াত।

রাখি আরও বলেন, ১২ বছর আগে তনুশ্রী আমার ভালো বন্ধু ছিল। আমি তখন সাদাসিদে ছিলাম। এতকিছু বুঝতাম না। শুধু ছেলেরাই অপকর্ম করে না। মেয়েরাও করে। তনুশ্রী আমার সঙ্গে বারবার নোংরামি করেছে। আমি এসব করতে চাইনি। কিন্তু এসবের শুরু তনুশ্রীই করেছিল।

সংবাদ সম্মেলনে রাখি সাওয়ান্ত

এরপর হুমকি দিয়ে তিনি বলেন, তনুশ্রী আমাকে নীচুস্তরের মানুষ বলেছে, তাই আমি ওর বিরুদ্ধে ৫০ কোটি রুপির মানহানির মামলা করব।

১০ বছর আগে হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির সেটে তনুশ্রী যৌন হেনস্তার শিকার হন। তনুশ্রী বলিউডের শক্তিশালী অভিনেতা নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেছেন। নানার পাশে দাঁড়িয়েছেন রাখি সাওয়ান্ত। রাখির বক্তব্য, তনুশ্রী নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছে। কারণ তিনি এই ঘটনার সাক্ষী। সেদিনের সেই ঘটনা ব্যাখ্যা করে রাখি বলেছিলেন,তনুশ্রী মাদক সেবন করে নিজের ভ্যানে পড়েছিল। একাধিকবার ডাকাডাকির পরও দরজা খোলেনি। গণেশ আচার্য আর নানা পাটেকার আমাকে ফোন করে ডেকে পাঠান। তাঁদের কথামতো আমি তনুশ্রীর পরিবর্তে আইটেম ড্যান্স করি। তনুশ্রী কিছুটা অংশ শুট করে নিজের ভ্যানে গিয়ে দরজা বন্ধ করে পড়েছিল। পরে আমি ওর মেকআপ আর্টিস্ট আর হেয়ার ড্রেসারের কাছ থেকে সবকিছু জানতে পারি। তনুশ্রী ড্রাগের নেশায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়েছিল। চার ঘণ্টা পর ওর নেশার ঘোর কাটে।