অন্যরকম

ডোরাকাটা গাধা!

গাধার গায়ে রং মেখে জেব্রা সাজিয়ে দর্শনার্থীদের বোকা বানানোর ঘটনা হয়তো এর আগে শোনা যায়নি। কিন্তু এমনই ঘটনা ঘটেছে মিশরের একটি চিড়িয়াখানায়।

ওই চিড়িয়াখানায় ঘুরতে গিয়ে এমনই ঘটনার সাক্ষী ১৮ বছর বয়সী মাহমুদ সারহান। চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ ওই প্রাণীটিকে জেব্রা বলে দাবি করলেও এর বেশ কিছু বৈশিষ্ট সন্দেহজনক মনে হয় সারহানের কাছে।

তাঁর কাছে মনে হয়েছে, প্রাণীটির কালো ডোরাকাটা দাগগুলো যেন গলে গেছে, দেখে মনে হচ্ছে রং দিয়ে আঁকা হয়েছিল সেগুলো। তাছাড়া হাড্ডিসার প্রাণীটির কানগুলোও জেব্রার মতো না বরং মিল রয়েছে গাধার কানের সঙ্গে।

সারহান অভিযোগ করে জানান, কায়রোর মিউনিসিপাল পার্কে সম্প্রতি চালু চালু হওয়া একটি চিড়িয়াখানায় ঘুরতে গেলে একটি অদ্ভুত দর্শন প্রাণী তার মনোযোগ আকর্ষণ করে।

চিড়িয়াখানা থেকে বের হয়ে সন্দেহজনক প্রাণীটির একটি ছবি ফেসবুকে পোস্টও করেন তিনি। ক্যাপশনে তিনি লেখেন, দেশে বোকাদের সংখ্যা এতই বেড়ে গেছে যে একটা স্থানীয় গাধা কিনে জেব্রার মতো রং করে চিড়িয়াখানায় চালিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

তবে চিড়িয়াখানার পরিচালক মোহাম্মদ সুলতানের দাবি, এরা আসলেই জেব্রা। প্রাণীগুলোকে প্রতিনিয়ত যত্ন নেওয়া হয়। তবে প্রাণীগুলোর ছবি দেখে এ বিষয়ে একমত হতে পারেনি প্রাণী সংরক্ষণবাদী গ্রুপ ‘পেটা’।

এ ব্যাপারে পেটা ফাউন্ডেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ডেলসিয়ানা উইন্ডার বলেন, দেখে মনে হচ্ছে গাধাটির দেহে কোনো রাসায়নিক রঙ ব্যবহার করা হয়েছে, যা থেকে মারাত্মক অ্যালার্জি সৃষ্টি হতে পারে। কায়রোর কর্তৃপক্ষের উচিত বিষয়টি ভালো মতো তদন্ত করা।