লাইফস্টাইল

ঝুঁকিহীন লগ্নি করতে চান? এই প্রকল্পগুলিতে বিনিয়োগ করতে পারেন

শেয়ার বাজারে সূচকের ওঠা-নামা তো লেগেই রয়েছে। এই মুহূর্তে যাঁরা মিউচুয়াল ফান্ডের মতো ঝুঁকিপূর্ণ লগ্নি করতে ভয় পাচ্ছেন, তাঁরা বিনিয়োগ করতে পারেন এই সমস্ত প্রকল্পে।

কিষাণ বিকাশ পত্র: এখানে লগ্নির নির্দিষ্ট কোনও ঊর্ধ্বসীমা নেই। তবে ন্যূনতম ১০০০ টাকা রাখতে হবে এই স্কিমে। এর ম্যাচুরিটি পিরিয়ড ৯ বছর ১০ মাস। লক-ইন পিরিয়ড আড়াই বছর। বার্ষিক চক্রবৃদ্ধি হারে সুদ ৭.৩ শতাংশ।

পিপিএফ: এই খাতে বছরে সর্বাধিক দেড় লক্ষ টাকা লগ্নি করতে পারেন। লগ্নির টাকা বছরে সর্বাধিক ১১ বার জমা করা যাবে। এখানে জয়েন্ট অ্যাকাউন্টের সুবিধাও আছে। সর্বাধিক ১৫ বছরের জন্য এই খাতে লগ্নি করতে পারেন। ১৫ বছর পেরিয়ে যাওয়ার পর আবেদন করে অতিরিক্ত ৫ বছরের জন্য লগ্নির সুবিধা আছে। এতে আয়কর ছাড়ের সুবিধাও আছে। এই খাতে চক্রবৃদ্ধি হারে সুদ ৭.৬ শতাংশ।

আরও পড়ুন: সিলিন্ডারে আর কতটা গ্যাস পড়ে রয়েছে, বুঝবেন কী ভাবে! জেনে নিন…

পোস্ট অফিস রেকারিং ডিপোজিট অ্যাকাউন্ট: এই খাতে ৩ বছরের লক-ইন পিরিয়ড আছে। তিন বছরের পর প্রয়োজনে স্কিম বন্ধ করতে পরেন। এই খাতে ৬.৯ শতাংশ সুদ পাবেন।

পোস্ট অফিস টাইম ডিপোজিট অ্যাকাউন্ট: এই প্রকল্পে এক বছরের জন্য বিনিয়োগে সুদ ৬.৬ শতাংশ, দুই এবং তিন বছরের জন্য বিনিয়োগে সুদ ৬.৭ শতাংশ এবং ৫ বছরের সুদ ৭.৪ শতাংশ।

পোস্ট অফিস মান্থলি ইনকাম স্কিম অ্যাকাউন্ট: এই প্রকল্পে সিঙ্গল অ্যাকউন্টের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ১৫০০ টাকা থেকে সর্বাধিক ৪.৫ লক্ষ টাকা জমাতে পারেন। আর জয়েন্ট অ্যাকাউন্টের জন্য সর্বাধিক লগ্নির পরিমাণ ৯ লক্ষ টাকা। এই প্রকল্পে ম্যাচুরিটি পিরিয়ড ৫ বছর।

আরও পড়ুন: সুযোগ সুবিধা জেনে নিয়ে খুলুন জিরো ব্যালান্স সেভিংস অ্যাকাউন্ট!

সুকন্যা সমৃদ্ধি অ্যাকাউন্ট: এই প্রকল্পে বার্ষিক সুদ চক্রবৃদ্ধি হারে ৮.১ শতাংশ। বছরে ১০০০ টাকা থেকে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত লগ্নি করা যেতে পারে। শিশুকন্যার জন্মের পর থেকে ১০ বছর বয়সের মধ্যে এই প্রকল্পে লগ্নি করা যায়। মেয়ের বয়স ২১ বছর হলে এই প্রকল্পটি বন্ধ করা যেতে পারে। আর কন্যার বয়স ১৮ বছর হলে তার পড়াশোনা এবং বিয়ের খরচের জন্য প্রকল্প থেকে কিছু টাকা তোলার সুবিধা আছে।

ন্যাশনাল সেভিংস সার্টিফিকেট: এই প্রকল্পে ন্যূনতম লগ্নি করতে হবে ১০০ টাকা। লগ্নির কোনও নির্দিষ্ট ঊর্ধ্বসীমা নেই। শর্ত একটাই, লগ্নি করা টাকা শুধুমাত্র ১০০-র গুণিতকে হতে হবে। এই প্রকল্পে সুদ বছরে ৭.৬ শতাংশ যা হাতে পাবেন স্কিম ম্যাচুরিটির পর।

সিনিয়র সিটিজেন সেভিংস স্কিম: এই প্রকল্পে সর্বাধিক ১৫ লক্ষ টাকা লগ্নি করতে পারেন। এই প্রকল্পে ন্যূনতম লগ্নির বয়স ৬০ বছর। ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত নগদে এবং তার বেশি টাকা লগ্নির ক্ষেত্রে চেক-এ জমা দিতে হবে।