জাতীয়

জয়ের জন্মদিনে যেসব আইটেম রান্না করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রচন্ড ব্যস্ত তিনি। দল প্রশাসন নিয়ে তাঁর দম ফেলার সময় নেই। সামনে নির্বাচনের প্রস্তুতি। এতোসব কিছুর পরও আজ রান্নাঘরে ঢুকলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বড় ছেলের জন্মদিন বলে কথা। জয়ের পছন্দ মায়ের হাতে রান্না করা বিরিয়ানী। আজ তাই ছেলের জন্য নিজেই রান্না করলেন বিরিয়ানী।

আদর করে ছেলেকে খাইয়েও দিলেন। এটা সজীব ওয়াজেদ জয়ের সবচেয়ে বড় উপহার। মায়ের কাছে এটাই তাঁর জন্মদিনে সবচেয়ে বড় পাওয়া। সজীব ওয়াজেদ জয় সব সময়ই বলেন, ‘মায়ের চেয়ে বিরিয়ানী ভালো রান্না আর কেউ করতে পারে না।’

জাতির পিতার দৌহিত্র তিনি, মা প্রধানমন্ত্রী, তিনি নিজে তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ। তারপরও জন্মদিন নিয়ে তাঁর কোন আড়ম্বর নেই, নেই কোন আয়োজন। সকালে নেতা-কর্মীরা গণভবনে গিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছে, সজীব ওয়াজেদ জয়কে। ব্যস এটুকুই।

ছেলের জন্মদিন উপলক্ষে দুপুরটায় সব ব্যস্ততাকে দূরে সরিয়ে রেখেছেন। আর রাতে হয়তো ছেলেকে বুকে জড়িয়ে আদর করে কপালে একটা চুমু দিয়ে দেবেন। এই একটু আদর প্রধানমন্ত্রীকে কিছুক্ষণের জন্য ভুলিয়ে দেবে, বামা-মা হারানোর যন্ত্রণা। তারপর আবার ব্যস্ত জীবন,

মানুষের জন্য অহর্নিশ ভাবনা, দেশের কল্যাণে কঠোর পরিশ্রম করে যাওয়া। অসাধারণ একজন রাষ্ট্র নায়ক একটু সময়ের জন্য যেন সাধারণ মা হয়ে যান।