খেলাধুলা

জীবনের শেষ ম্যাচে কুকের হাফ সেঞ্চুরি

ইংল্যান্ডের ক্রিকেটে কিংবদন্তি ওপেনার তিনি। সর্বশেষ হাফ সেঞ্চুরি করেছেন ১০ ম্যাচ আগে। তারপরেও তাকে বাদ দেওয়ার কথা উচ্চারণ করেনি ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ডের কেউ। কিন্তু নিজেই বুঝে গেছেন যে, বিদায় নেওয়ার সময় এসে গেছে। আরেকটু থাকলে হয়তো বিদায়ী ম্যাচের প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরির বিরল ইতিহাস গড়তে পারতেন তিনি। কিন্তু অ্যালিস্টার কুক থামলেন ১৯০ বলে ৮ বাউন্ডারিতে ৭১ রানে।

অব্যাহত এই বাজে ফর্মের কারণেই অবসরের সিদ্ধান্ত তার। কেনিংটন ওভালে আজকের ম্যাচে নামার আগে কুক বলেছিলেন, ‘রাউন্ড দ্য উইকেটে এসে ইশান্ত শর্মা আমাকে বারবার আউট করছে, এটা আমার একেবারেই ভালো লাগছিল না। ক্যারিয়ারের শেষ দিকে ওর বল খেলতেই সবচেয়ে সমস্যায় পড়তে হয়েছে। আমার ক্যারিয়ারে দেখেছি গতি নয়, যারা নিয়মিত একই জায়গায় বল ফেলতে পারে, তাদের খেলাটাই সবচেয়ে কঠিন।’

বিদায়ী টেস্টে মাঠে নামার আগে কুককে একটি স্মারক ক্যাপ উপহার দেন ইংলিশ অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) পরিচালক অ্যান্ড্রু স্ট্রাউস, যিনি একসময় কুকের ওপেনিং পার্টনার ছিলেন। এছাড়া ব্যাটিংয়ে নামার সময় প্রতিপক্ষ ভারতের ক্রিকেটাররা সারিবদ্ধ হয়ে দাঁড়িয়ে কুককে গার্ড অব অনার প্রদান করেন। এ সময় মাঠে থাকা হাজারও সমর্থক করতালি দিয়ে অভিনন্দন জানান দেশের ক্রিকেটের জীবন্ত কিংবদন্তিকে।

বয়সটা মাত্র ৩৩। চাইলে আরও কিছুদিন অনায়াসেই খেলাটা চালিয়ে যেতে পারতেন কুক। কিন্তু অফফর্ম তাকে সেই পথে হাঁটতে দিল না। সম্ভবত সঠিক সময়েই সঠিক সিদ্ধান্ত নিলেন একটানা ১৬১ টেস্ট খেলার বিশ্বরেকর্ডের মালিক কুক।