লাইফস্টাইল

প্রথমেই মাত্রাতিরিক্ত মিলন নয়, কি বলছে কামসূত্র?

শীতে রাত বাড়লেই বাড়ছে লেপের মধ্যে সেঁধিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা৷ সঙ্গে পাশে যদি স্ত্রীকে পাওয়া যায়, তাহলে তো কথাই নেই৷ আদর তখন চরমে৷ কিন্তু সেই সময় নিরাপত্তা যেন থাকে অবশ্যই৷

কন্ডোম রাখুন সবসময়
নিজের কাছে সবসময় কন্ডোমের স্টক রাখুন৷ বলা যায় না, কখন কাজে লেগে যায়৷ তখন কন্ডোমের অভাবে মীলন করতে গেলেই বিপদ৷

অতিরিক্ত মদ্যপান নয়
কখনই অতিরিক্ত মদ খেয়ে মীলন করতে যাবেন না৷ ওই অবস্থায় অনেক সময় মাথা কাজ করা বন্ধ করে দেয়৷ ফলে প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বন করতে ভুলে যাওয়া কিছু আশ্চর্য নয়৷

প্রয়োজনে ডাক্তারের সঙ্গে আলোচনা
অতীতে যদি আপনি শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়ে থাকেন আর তার প্রভাব যদি এখনও না কেটে গিয়ে থাকে, তাহলে চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলুন৷ অনেকসময় দেখা যায় শরীরের ক্ষত মুছে গেলেও মনের ক্ষত মিটতেই চায় না৷ এক্ষেত্রেও চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা করে নেওয়া ভালো৷

প্রথম বারেই মাত্রাতিরিক্ত আদর নয়
প্রথমবার যদি আপনি আপনার পার্টনারের সঙ্গে মিলিত হয়ে থাকেন, তাহলে সীমা অতিক্রম করবেন না৷ এতে বিশ্বাস বাড়ে৷ সম্পর্কও পোক্ত হয়৷

সম্ভব হলে ডাক্তারি পরীক্ষা করান
হঠাৎ কাউকে ভালো লাগল, আর তার সঙ্গে মিশে গেলেন বিছানায়, এমন করবেন না৷ এইডস থেকে শুরু করে গনোরিয়া, হেপাটাইটিসের মতো রোগ চলে আসতে পারে আপনার শরীরে৷ ফলে সম্ভব হলে নিজের ও পার্টনারের ডাক্তারি পরীক্ষা আগে থাকতেই করিয়ে নেওয়া জরুরি৷

ইনফেকশন এড়ান
মীলন করার পর মূত্রত্যাগ করতে চেষ্টা করুন৷ এর ফলে ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না৷ ব্যাকটেরিয়া দেহ থেকে বেরিয়ে যায়৷ নাহলে সে*ক্সের পর ইনফেকশন হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা থাকে৷

দুটো কন্ডোম কখনই নয়
অনেকের মধ্যেই এমন ধারণা রয়েছে সে*ক্সের সময় একটা কন্ডোম ছিঁড়ে যেতে পারে৷ তাই দুটো কন্ডোম পরে অনেকে৷ কিন্তু এই ধারণা একেবারে ভুল৷ বরং দুটো কন্ডোম পরলেই মুশকিল৷ পিচ্ছিল হওয়ার জন্য দুটো কন্ডোম ঘষা লেগে দুটোই খুলে যেতে পারে৷ আপনার প্রোটেকশনের তখন কোনও মানে থাকে না৷

কথা বলুন
এটা সবথেকে বেশি জরুরি৷ নির্দ্বিধায় বলুন আপনি ঠিক কী চান৷ এতে আপনার পার্টনার আরও কমফর্টেবল হবে৷ আপনার প্রতি ভরসাও বাড়বে তার৷