লাইফস্টাইল

এই গরমে আরাম পেতে কি করবেন?

গরমে অন্তত দুই থেকে তিন লিটার পানি পান করা। তৈলাক্ত ও অতিরিক্ত মসলাযুক্ত খাবার, রাস্তার খোলা খাবার বা পানীয় এড়িয়ে চলা ভাল। গরমে পানিবাহিত অসুখ টাইফয়েড, জন্ডিসের জীবাণু থাকে ফুটপাতের শরবত, খোলা খাবারে। তাই এগুলো একেবারেই খাবেন না।

বাইরের খাবার না খেয়ে মৌসুমি রসালো ফল তরমুজ, আম, জাম, জামরুল খেতে হবে। আর সেই সঙ্গে ডাবের পানি, টাটকা ফলের রস, শসা,টক দই বেশি করে খাওয়া দরকার। অতিরিক্ত গরমে প্রতিদিন কমপক্ষে দুবার গোসল করা প্রয়োজন। এতে আপনি অনেকটা আরাম পাবেন।

গরমে বাইরে গেলে
রোদে পোড়া ত্বক গ্রীষ্মে সবচেয়ে বেশি সমস্যা তৈরি করে। সানবার্নে মুখসহ শরীরের ত্বকের সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়। তাই ছাতা, সানস্ক্রিন, সানগ্লাস ব্যবহারের বিকল্প নেই।

আবার বাইরে থেকে ঘরে ফিরে কিছু ঘরোয়া উপায় মেনে চললে আপনার ত্বক শান্তি পাবে। অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী ত্বকের জ্বালাভাব অনেক কমায়। আর যদি রেফ্রিজারেটরে রেখে ব্যবহার করতে পারেন তবে বেশ আরাম পাবেন।

গ্রিন টিও একটি প্রকৃতিক উপকারী উপাদান। চায়ের লিকার বানিয়ে তা ফ্রিজে রেখে দিন। ঠাণ্ডা হলে প্রয়োজনীয় অংশে প্রয়োগ করুন। তৈলাক্ত ত্বকে ডাবের পানি, তরমুজের রস ও লেবুর রস মিশিয়ে মাখলে প্রচণ্ড তাপেও ত্বকে বার্ন হওয়া থেকে উপকার পাওয়া যায়।

মনে রাখবেন রোদে পোড়া ত্বক কখনোই ঘষামাজা বা চুলকানো ঠিক নয়। এতে ত্বকের অভ্যন্তরীণ স্তর ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ফলে পরবর্তীতে ওই জায়গায় ছোট ছোট দানার মতো হতে পারে।

এছাড়া অতিরিক্ত গরমে সিনথেটিক পোশাক না পরে হালকা রংয়ের সুতির নরম পোশাক পড়াই ভাল। খুব টাইট,পা ঢাকা জুতা না পড়ে খোলা স্যান্ডেল পড়ুন। এই গরমে স্বাস্থ্যের প্রতি যত্ন নিন, প্রচুর পানি খান, বার বার মুখ ধোয়ার অভ্যাস করুন।