বিনোদন

আলিয়া ভাটের মাকে ধর্ষণের চেষ্টা!

আলিয়া ভাটের মা অভিনেত্রী ও চিত্র পরিচালক সোনি রাজদান

বলিউডের এ সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় তারকা আলিয়া ভাটের মা অভিনেত্রী ও চিত্র পরিচালক সোনি রাজদানকে ছবির শুটিংয়ে সেটে নাকি ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছিল! তবে কোথায়, কবে, ছবির নাম কিংবা কে এই চেষ্টা করেছিলেন, তা তিনি প্রকাশ করেননি। এবার ‘দ্য কুইন্ট’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সোনি রাজদান বলেন, আমি অভিযুক্তের নাম ফাঁস করলে ওই ব্যক্তি সামাজিক ও পারিবারিকভাবে খুব সমস্যার মধ্যে পড়বেন। তাঁর একটা পরিবার আছে; স্ত্রী আছে, মেয়ে আছে। তাঁর পরিবার ট্রমার মধ্যে পড়ে যাবে। আর আমার পরিবারও ঝামেলায় জড়িয়ে যাক, সেটা চাইনি। এসব কিছু ভেবে ওই সময় নিজেকে সংযত রেখেছিলাম।

সোনি রাজদান ও আলিয়া ভাটসোনি রাজদান ও আলিয়া ভাট

সোনি রাজদান এ পর্যন্ত ২৩টি চলচ্চিত্র অভিনয় করেছেন। পাশাপাশি পরিচালনাও করেছেন। অভিনয় করেছেন ছোট পর্দায়েও। তিনি চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক মহেশ ভাটের স্ত্রী। সোনি রাজদান আরও বলেন, একটি ছবির শুটিং চলার সময় কেউ আমাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছিল। তবে তা সফল হয়নি। সেই অভিজ্ঞতা কখনো ভুলতে পারব না। সেদিন সেখান থেকে পালিয়ে এসে নিজের সম্মান বাঁচিয়েছিলাম। তখন নিজেকে বুঝিয়েছিলাম, কিছু তো হয়নি। হলে না হয় দেখা যেত।

ঘটনাটি যদি এ সময় ঘটত, তাহলে? ৬১ বছর বয়সের সোনি রাজদান বলেন, ‘আজ যদি ঘটত, তাহলে অন্য রকম প্রতিক্রিয়া হতো। আমি নিঃসন্দেহে অভিযোগ জানাতাম। মোটেই চুপ থাকতাম না।

মহেশ ভাট ও সোনি রাজদানমহেশ ভাট ও সোনি রাজদান

এদিকে সোনি রাজদান সম্প্রতি সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে বলেন, “#মি টু” আন্দোলন একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ। আমি বুঝি, এ ধরনের অভিজ্ঞতা কতটা ভয়ানক। অনেকেই বলছেন, যৌন হেনস্তার ঘটনা ঘটলে কাজ ছেড়ে বেরিয়ে যাও। এ কথা বলা সহজ; কিন্তু যে নারী চাকরি করছে, বুঝতে হবে তার কাছে চাকরিটা কতটা জরুরি। এর মধ্য দিয়ে তার পরিবার বাঁচে। তাই যারা এমন অভিজ্ঞতার শিকার, তাদের মুখ খুলতে উদ্বুদ্ধ করুন।

সোনি রাজদান আরও বলেন, সব প্রতিষ্ঠানের উচিত যৌন হেনস্তার অভিযোগের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি নেওয়া। যাতে হেনস্তার শিকার হওয়া নারী নিজের অভিযোগ জানানোর সময় সুরক্ষিত বোধ করেন।

সোনি রাজদানসোনি রাজদান

যাঁরা যৌন হেনস্তার মুখোমুখি হয়েছেন, এবার তাঁদের পাশে এসে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে সিনে অ্যান্ড টিভি আর্টিস্টস অ্যাসোসিয়েশন, মুম্বাই অ্যাকাডেমি অব দ্য মুভিং ইমেজ এবং দ্য ফেডারেশন অব ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এমপ্লয়িজ। এই তিনটি সংগঠন এরই মধ্যে যৌন হেনস্তার ব্যাপারে কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে।