লাইফস্টাইল

আপনাকে হতে হবে আত্নবিশ্বাসী ডিভোর্সে শেষ নয়, শুরু হোক জীবন

ডিভোর্স বা সম্পর্কের ছাড়াছাড়ি নানা কারণেই হতে পারে। হয়তো মতের মিল না হওয়া, কিংবা পারস্পরিক সমঝোতার অভাব, পারিবারিক কলহ, দাম্পত্য জীবনে আকর্ষণের অভাব এর মত কারণগুলোই আসলে প্রধান। তখন একজন নারীর জন্য ব্যাপারটা পুরুষের তুলনায় বেশি চ্যালেঞ্জিং হয়ে দাঁড়ায়। তবে যাই হোক ডিভোর্স এর মত সিদ্ধান্ত নিলে আপনাকে হতে হবে আত্নবিশ্বাসী।

সমাজে মাথা উঁচু করে দাঁড়ান ডিভোর্সের পর মাথা উঁচু করে দাঁড়ান, নিজের পরিবারের কাছে কারণ ব্যাখ্যা করুন। যদি কেউ উদ্দেশ্যমূলক ভাবে কিছু বলে সেটিকে এড়িয়ে যান। কারণ তর্ক করা ছাড়াও আপনার অনেক কিছু করার আছে।

নিজেকে সময় দিন ডিভোর্সের পর নিজেকে সময় দেয়া অত্যন্ত জরুরী। নিজের আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর জন্য আপনার ক্যারিয়ার নিয়ে ভাবুন। আপনার মূল্য কতটুকু সেটা নিজেকে বোঝান।

পরিবারকে সময় দিন পরিবারের সাথে সময় কাটান। আপনার বাবা মা থাকলে তাদের সাথে গল্প করুন। সন্তান থাকলে তাকে সময় দিন। আপনার পাশাপাশি তাকেও মানসিকভাবে প্রস্তুত করুন।

নিজেকে দোষ দেবেন না আমাদের সমাজে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় ডিভোর্সের পর নারীরা মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েন। ডিভোর্সের কারণ হিসেবে দোষ দেন নিজেকে। আপনি ডিভোর্স নিতে বাধ্য হলে সেটা কখনোই আপনার দোষ নয়।

তাড়াহুড়ো করার কিছু নেই অনেকেই আছেন ডিভোর্সের পর নতুন সম্পর্কে জড়ানোর জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়েন। এটি না করে নিজেকে প্রস্তুত করুন, পীড়াদায়ক অনুভূতিগুলোকে আস্তে আস্তে চলে যেতে দিন।

আত্মবিশ্বাসী হোন, ভালো থাকুন ডিভোর্সের পর গুরুত্বপূর্ণ আত্মবিশ্বাসী থাকা। অতীতে কী কী ভুল করেছেন সেগুলো বের করুন। ভবিষ্যতে যে কোনো সম্পর্কে এই ভুলগুলো না করার প্রত্যয় নিন এবং আত্নবিশ্বাসী হন।