অন্যরকম

অস্বাভাবিকভাবে চলছিল গাড়ি, হুডের ভেতর আস্ত পাইথন

যুক্তরাষ্ট্রের এক নারীর ব্যক্তিগত গাড়িতে সমস্যা দেখা দেওয়ায় কারণ খুঁজতে যান তিনি। কিন্তু গাড়ির হুড তোলার পর তার চোখ ছানাবড়া হয়ে যায়। হুডের ভেতরে বিশালাকৃতির এক সাপ দেখতে পান ওই নারী।

পুলিশ বলছে,  একজন মোটর ম্যাকানিককে ওই নারী ডেকে নিয়ে এসেছিলেন গাড়ি সারানোর জন্য। কিন্তু গাড়ির হুড তোলার পর দেখতে পান, ইঞ্জিনের উপর বিশালাকৃতির একটি সাপ।

দুইজন পুলিশ সেখানে উপস্থিত হন। তারাই সাপটিকে সরানোর চেষ্টা করেন। পরবর্তী সময়ে বোঝা যায় সাপটি বল পাইথন গোত্রীয়। অবশ্য ওই কর্মকর্তারা সাপটিকে সরাতে ব্যর্থ হন এবং পরে একজন অভিজ্ঞ ব্যক্তিকে সাপটি ধরার জন্য ডেকে পাঠানো হয়।

গাড়ির হুডের ভেতরে পাইথন থাকার ব্যাপারে ফেসবুক দেওয়া একটি পোস্ট ভাইরাল হয়ে যায়। সেখানে একজন লেখেন, সৃষ্টিকর্তার প্রকি অশেষ মেহেরবানি! আমি আর কোনোদিন আমার গাড়ির হুড খুলবো না!

আরেকজন লেখেন, দারুণ ব্যপার, মানুষ মানুষের (এবং সাপের) সাহায্য করছে। স্থানীয় একটি গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সাপ উদ্ধারকারী স্টিভ কেলার চার ফুটের একটি পাইথন ধরে নিজের জিম্মায় রেখেছেন। পরবর্তীতে জানা গেছে সাপটি একজনের পোষা এবং সেখান থেকে পালিয়ে এসে এই কান্ড ঘটিয়েছে। ওমরোতে ক্ষতিকর পোষ্য রাখা বেআইনি। সেহেতু ওই ব্যক্তি আর সাপটি ফেরত পাবেন না।

এই প্রথম কোনো সাপ গাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে তা নয়। গত জুন মাসেও ভার্জিনিয়ায় এক নারী গাড়ি চালানোর সময় এয়ার ভেন্টের ভেতর থেকে সাপ উঁকি দিতে দেখেন।