খেলাধুলা

অস্ট্রেলিয়ার চেয়েও এগিয়ে টাইগাররা

দীর্ঘ নয় বছর পর বিদেশের মাটিতে সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ। হিসেব মতে, ২০০৯ সালে জিম্বাবুয়ে ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ জিতেছিল টাইগাররা। বলতে হয়, টি-টোয়েন্টি কিংবা টেস্টে বাংলাদেশের পারফর্ম যা তা।

কিন্তু ২০১৫ বিশ্বকাপ থেকেই মাশরাফির নেতৃত্বাধীন ওয়ানডে দলটি বেশ ধারাবাহিক। আর এই সময়ে জয়ের হারে তারা টপকে গেছে ওয়ানডের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকেই!

২০১৫ বিশ্বকাপ বাংলাদেশের জন্য ছিল দারুণ এক টুর্নামেন্ট। গ্রুপ পর্বের খেরো খাতায় লেখা আছে, ছয় ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ। আসলে তা ৫ ম্যাচ। কারণ, বৃষ্টির বাগড়ায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে একটি বলও মাঠে গড়ায়নি।

তো, সেই পাঁচ ম্যাচের তিনটিতে জিতে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছিল মাশরাফির দল। এই পারফরম্যান্সটুকু পরবর্তী সময়ে ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে যে ধারাবাহিক করে তুলবে, তা জানত কে!

সেই বিশ্বকাপ থেকে এই তিন বছরে ৭০টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছ অস্ট্রেলিয়া। এর মধ্যে তারা জিতেছে ৩৪ ম্যাচ। জয়ের হার ৪৮ শতাংশের কাছাকাছি। বাংলাদেশ ঠিক এখানেই টপকে গেছে অস্ট্রেলিয়াকে।

২০১৫ বিশ্বকাপ থেকে এ পর্যন্ত ৫০ ম্যাচ খেলে ২৬টিতে জিতেছে বাংলাদেশ। অর্থাৎ জয়ের হার ৫২ শতাংশ। সর্বশেষ ওয়ানডে বিশ্বকাপ থেকে এই তিন বছরে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াও ৫০ ওভারের সংস্করণে বাংলাদেশের মতো এতটা ধারাবাহিক না!